২২ নভেম্বর ২০১৯

শেরপুরে হাসপাতালের বাথরুম থেকে রোগীর লাশ উদ্ধার

শেরপুর জেলা হাসপাতালের পুরুষ ওয়ার্ডের বাথরুমের ভেন্টিলেটরের সাথে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলন্ত এক রোগীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। মৃত আব্দুল মালেক (৬৫) সদর উপজেলার লছমনপুর এলাকার ময়েজ উদ্দিনের ছেলে ও ছয় সন্তানের জনক। তিনি পেশায় একজন আইসক্রিম বিক্রেতা ছিলেন।

মূত্রথলির সমস্যা নিয়ে তিনি গত ২৬ অক্টোবর থেকে জেলা হাসপাতালের পুরুষ সার্জিকেল ওয়ার্ডের বি-১৩ নম্বর বেডে ভর্তি ছিলেন। হাসপাতালে ভর্তির পর থেকে তার সাথেই ছিলেন স্ত্রী ফিরোজা বেগম।

তিনি জানান, বুধবার সন্ধ্যা থেকে তার স্বামী আব্দুল মালেক চারবার বাথরুমে যায়। রাত সাড়ে নয়টার দিকে বাথরুমে যাওয়ার পর বেশ কিছুক্ষণ চলে গেলেও তিনি (আব্দুল মালেক) ফিরে না আসায় তাকে বাথরুমে খুঁজতে যান। সেসময় ভেন্টিলেটরের লোহার রডের সাথে গলায় রশি দিয়ে ফাঁস ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার দিলে হাসপাতালের অন্য রোগীর লোকজন ও নার্সরা তখন সেখানে দৌঁড়ে যান। সংবাদ পেয়ে জেলা হাসপাতালের চিকিৎসক এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দ্রুত সেখানে ছুটে যান। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. বিল্লাল হোসেন এবং সদর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ পুলিশ কর্মকর্তারা। 

জেলা হাসপাতালের আরএমও (আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা) ডা. খায়রুল কবীর সুমন জানান, নিহত ব্যক্তির চিকিৎসার কাগজপত্র দেখে জানা গেছে, তিনি দীর্ঘদিন ধরে নানারোগে আক্রান্ত ছিলেন। গত ২৬ অক্টোবর সকাল নয়টার দিকে মূত্রথলির জটিলতা নিয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তার অবস্থা এখন ভালোর দিকে ছিল। এর আগে একবার তার আলসারের অপারেশনও হয়েছিলো। হাসপাতালের বাথরুমে ফাঁস লাগিয়ে রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি জানতে পেরে ছুটে আসি। পুলিশকে জানানোর পর তারা এসে লাশ উদ্ধার করেন।

শেরপুর সদর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, জেলা হাসপাতালের বাথরুম থেকে নিহতের ফাঁস ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দীর্ঘদিন ধরে রোগভোগের কারণে মানসিক যন্ত্রণায় তিনি আত্মহত্যা করতে পারেন। তবে লাশের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ব্যাপারে একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। সূত্র : ইউএনবি।


আরো সংবাদ

ভুয়া শিশু পর্নোগ্রাফি ব্যবহার করতে পারবে পুলিশ বাংলাদেশের ১০৬ রানই অনেক ভালো! মুন্সীগঞ্জে দুর্ঘটনায় ১০ জন নিহতের ঘটনায় জামায়াতের শোক জেলে যেতে হচ্ছে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রীকে? কৈশোরে শরীরচর্চা : বিশ্বে বাংলাদেশ শীর্ষে ইডেনে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করলেন মিরাজ-তাইজুল চট্টগ্রাম বিমানবন্দরের টয়লেটে মিলল ৪ কোটি টাকার স্বর্ণ প্রকৃতি নিজের কোলে লালন করছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে : তথ্যমন্ত্রী যৌতুকের টাকা পরিশোধ না করায় গৃহবধূকে তালাকের হুমকি সামাজিক মাধ্যমে বিভ্রান্তি ছড়ালে জরিমানার বিধিমালা হচ্ছে : তথ্যমন্ত্রী ফরিদপুরে বাবার নির্যাতন থেকে রক্ষা পেতে ৩ সন্তানের সংবাদ সম্মেলন

সকল

আজানের মধুর আওয়াজ শুনতে ভিড় অমুসলিমদের (২৫৪৫৭)ধর্মঘট প্রত্যাহার : কী কী দাবি মেনে নিয়েছে সরকার (২০৯৩৪)মানবতাকে জয়ী করেছে পাকিস্তান : রাবিনা ট্যান্ডন (১৯৪৬৭)কম্বোডিয়ায় কাশ্মির ইস্যুতে বক্তব্য, প্রতিবাদ করায় ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা হলো বিজেপি নেতাকে (১৯১৮৮)ব্যাংকে ফোন দিয়ে তদবির করে ‘ছাত্রলীগ সভাপতি’ আটক (৯৮৭১)আবারো রুশ-চীনা অস্ত্র কিনবে ইরান, আশঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রের (৯৭৬৩)৪ ভারতীয়কে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করবে পাকিস্তান (৯৫৮৪)৩৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে নেপাল-ভারত তুমুল বিরোধ (৯৩৪৩)গৃহশিক্ষক বিয়েতে বাধা দেয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা (৯০৫০)ইলিয়াস কাঞ্চনকে যে কারণে সহ্য করতে পারেন না বাস-ট্রাক শ্রমিকরা (৯০১৪)