১৯ নভেম্বর ২০১৯

আওয়ামী লীগ কর্মীর পায়ের রগ কাটল যুবলীগ নেতা

নেত্রকোনার বারহাটা উপজেলায় আওয়ামী লীগ কর্মী ওসমান গণির (৫০) পায়ের রগ কেটে দিয়েছে সাইকুল ইসলাম নামে ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সাইকুল ইসলাম ও তার ক্যাডাররা। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার আসমা ইউনিয়নের দেওপুর ঈদগাহ্ মাঠের অদূরে এই ঘটনা ঘটে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে উপজেলার আসমা ইউনিয়নের গোড়ল পশ্চিম পাড়া গ্রামের ওসমান গণির সাথে  একই গ্রামের মৃত কালাচানের ছেলে সাইকুল ইসলামের বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে সাম্প্রতিককালে দুই পক্ষের মাঝে বেশ কয়েক বার বাড়ি ঘরে হামলা, পাল্টা হামলা, ভাংচুর, মারধরের ঘটানা ঘটে। এ নিয়ে মামলা মোকদ্দমাও চলে আসছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ওসমান গনি বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে দেওপুর ঈদগাহ্ মাঠের কাছে পৌঁছলে আগে থেকে ধারালো অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে ওঁৎ পেতে থাকা সাইকুল ইসলাম ও তার ক্যাডাররা ওসমান গণির ওপর চড়াও হয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করার পর ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার বাম পায়ের রগ কেটে দেয়। এ সময় তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌঁছার সাথে সাথে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে ওসমান গণিকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঘটনার রাতে আহতের স্ত্রী  জুলফা আক্তার বাদি হয়ে সাইকুল ইসলাম, তরিকুল ইসলাম, অলি মিয়া, একই গ্রামের মৃত সুলতান মিয়ার ছেলে হাবিব মিয়া এবং ওয়ারেছ আলীর ছেলে দিলু মিয়া ও শফিক মিয়াকে আসামি করে বারহাট্টা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

বারহাট্টা থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি} বদরুল আলম খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ শুক্রবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি সাইকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে।


আরো সংবাদ