২০ আগস্ট ২০১৯

ঢাকা-ময়মনসিংহ-বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ডুয়েল গেজ ডাবল রেললাইনের দাবিতে মনববন্ধন

ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ হয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ডুয়েল গেজ ডাবল রেললাইন স্থাপন প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন এবং ময়মনসিংহ থেকে সিলেট ও রংপুরে আন্তঃনগর ট্রেন চালুসহ সাত দফা দাবিতে ময়মনসিংহে প্রধানমন্ত্রী বরাবর জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি প্রদান ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ময়মনসিংহ রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্বরে ‘আমরা ময়মনসিংহবাসী’র ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসুচীতে ‘সিলেট-ময়মনসিংহ রেলপথে আন্তঃনগর ট্রেন চালুকরণ বাস্তবায়ন কমিটি-সিলেট’ সংহতি প্রকাশ করে যোগদান করে।

কর্মসূচী চলাকালে আমরা ময়মনসিংহবাসীর আহবায়ক জগলুল পাশা রুশো’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সিপিবির জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট এমদাদুল হক মিল্লাত, স্বেচ্ছাসেবকলীগের জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট এ বি এম নুরুজ্জামান খোকন, মহানগর মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট শিব্বির আহমদ লিটন, পরিবেশ বিষয়ক সংগঠন ‘প্রকৃতি’র আহবায়ক অ্যাডভোকেট আব্দুল মোত্তালেব লাল, ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র পরিচালক শংকর সাহা, ময়মনসিংহ রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, ময়মনসিংহ টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অমিত রায়, সুজন মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক আলী ইউসুফ, নারী নেত্রী সৈয়দা সেলিমা আজাদ ও দীপ শিখা খান, কবি শামীম আশরাফ, সিলেট-ময়মনসিংহ রেলপথে আন্তঃনগর ট্রেন চালুকরণ বাস্তবায়ন কমিটি-সিলেট’র সংগঠক মাহবুবুল হক, ইঞ্জিনিয়ার সিরাজুল ইসলাম খান, মোস্তফা আমিনুল হক প্রমুখ।

বক্তারা ময়মনসিংহ-ঢাকা রেলপথে আরো চারটি আন্তঃনগর ট্রেন চালু, ময়মনসিংহ হয়ে চলমান আন্তঃনগর সকল ট্রেনের অর্ধেক আসন ময়মনসিংহের জন্য বরাদ্দকরণ, ট্রেনের টিকেট কালোবাজারী বন্ধ এবং ময়মনসিংহ রেলস্টেশনকে আন্তর্জাতিক মানের আধুনিক রেলস্টেশনে রূপান্তরের দাবিও জানান।

এরআগে আমরা ময়মনসিংহবাসীর ব্যানারে সাত দফা দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর জেলা প্রশাসক ও স্টেশন সুপারের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

জেলা প্রশাসকের পক্ষে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক কে এম গালিভ খাঁন ও স্টেশন সুপার জহুরুল ইসলাম স্মারকলিপি গ্রহণ করেন।


আরো সংবাদ




bedava internet