২১ আগস্ট ২০১৯
টাঙ্গাইলে আইনজীবী হত্যা মামলা 

গ্রেফতার তিনজনের একজনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি, রিমান্ডে পিতা-পুত্র

টাঙ্গাইলের প্রবীণ আইনজীবী, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ নেতা মিয়া মোহাম্মদ হাসান আলী রেজা - ফাইল ছবি

টাঙ্গাইলের প্রবীণ আইনজীবী, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ নেতা মিয়া মোহাম্মদ হাসান আলী রেজাকে হত্যার ঘটনায় জড়িত অভিযোগে পিতা-পুত্রসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেন টাঙ্গাইল শহরের আকুর টাকুর এলাকার তপন কুমার সরকার ও তার স্ত্রী কল্পনা রানী এবং তাদের পুত্র তন্ময় কুমার।

রোববার সন্ধ্যায় নিজ বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। সোমবার বিকেলে তাদের কোর্টে চালান করে দেয় পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে কল্পনা রানী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন এবং পিতা-পুত্রকে তপন ও তন্ময়কে তিন দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

পুলিশ ও আদালত সূত্র জানায়, সোমবার বিকেলে গ্রেফতাকৃত তিনজনকেই আদালতে চালান করে দেয়া হয়। তপন কুমার সরকার ও তার পুত্র তন্ময় কুমারকে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত চীপ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে তাদের বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ। আদালতের বিচারক মোছাম্মৎ মনিরা সুলতানা তাদের বিরুদ্ধে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। বিকেলে তপন কুমারের স্ত্রী কল্পনা রানী একই আদালতে চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকাÐের বিষয়ে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিদেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোছাম্মৎ মনিরা সুলতানা এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

এদিকে অ্যাডভোকেট হাসান আলী রেজার হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে সোমবার সকালেও প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন করেন আইনজীবীরা। আদালত চত্বরে আয়োজিত এই কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন জেলা অ্যাডভোকেট বার সমিতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম খান আলো। আইনজীবীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বার সমিতির সাবেক সভাপতি মো. নূরুল ইসলাম ও ফায়েকুজ্জামান নাজিব, জিপি আনন্দ মোহন আর্য্য এবং বার সমিতির সাধারণ সম্পাদক মঈদুল ইসলাম শিশির। পরে একই দাবিতে তারা টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। একই সাথে সোমবার থেকে তিনদিন কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি শুরু করেন তারা।

হাসান আলী রেজা গত ৮ জুলাই সন্ধ্যার পর টাঙ্গাইল শহরের সাবালিয়া পাঞ্জাপাড়াস্থ নিজ বাসা থেকে চা খেতে বাইরে বের হয়ে নিখোঁজ হন। নিখোঁজ হওয়ার পাঁচদিন পর গত ১৩ জুলাই দুপুরে লৌহজং নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিখোঁজ হওয়ার পর টাঙ্গাইল সদর থানায় মিয়া মোহাম্মদ হাসান আলীর রেজার ছেলে রাশেদুল ইসলাম বাদি হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।


আরো সংবাদ




mp3 indir bedava internet