২৩ মে ২০১৯

বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ, অতঃপর বিষপানে...

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার ছয়বাড়িয়া গ্রামে ধর্ষণের শিকার জনৈকা স্কুল ছাত্রী অপমানে বিষপানে আত্নহত্যার চেষ্টা করেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে আশংকাজনক অবস্থায় ঔ স্কুল ছাত্রীকে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় নির্যাতিত স্কুল ছাত্রীর বাবা তাইজ উদ্দিন বাদী হয়ে গতকাল শুক্রবার বিকেলে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গফরগাঁও থানা মামলা দায়ের করেছেন।

ছাত্রীর পরিবার ও পুলিশ জানায়, উপজেলার রাওনা ইউনিয়নের দরিদ্র রিক্সাচালক মেয়ে কালাইপাড়-জালেশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীকে (১৪) একই গ্রামের জুয়েল মাঝির বখাটে ছেলে হৃদয় (২৪) বাড়িতে একা পেয়ে সম্প্রতি ধর্ষণ করে। এসময় বখাটে হৃদয় গোপনে বন্ধুদের দিয়ে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে।

পরে এই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে আরও ঔ স্কুল ছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে হৃদয়। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে বখাটে হৃদয় স্কুল ছাত্রীর বাবা মাকে ধর্ষণের ভিডিও চিত্র দেখিয়ে ঘটনাটি নিয়ে চুপ থাকতে বলে। বৃহস্পতিবার সকালে আপত্তিকর ভিডিওটি ফেরত দেওয়ার কথা বলে বখাটে হৃদয় ও তার বন্ধু রাসেলসহ তিন যুবক ঔ স্কুল ছাত্রীকে ফুসলিয়ে ছয়বাড়িয়া গ্রামের আতকা বিলের পাশে নির্জন স্থানে নিয়ে যায়।

ভিডিও ইন্টারনেটে ছাড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বন্ধুদের নিয়ে গণধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় স্কুল ছাত্রীর ডাক চিৎকারে জনৈক কৃষক এগিয়ে এলে বখাটে হৃদয় ও তার সহয়োগিরা পালিয়ে যায়। অপমান সইতে না পেরে ঔ স্কুল ছাত্রী দুপুরে বাড়ি ফিরে বিষপান করে। বাড়ির লোকজন টের পেয়ে তাকে প্রথমে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং অবস্থার অবনতি হলে রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

রাওনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবির হাসান সাহাবুল জানান, দরিদ্র রিক্সাচালকের মেয়ের চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয় ব্যবস্থা করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে এবং ঘটনার সুষ্ঠু বিচার জন্য থানা পুলিশের কাছে আইগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

গফরগাঁও থানা এসআই জাকিউর রহমান জানান, ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


আরো সংবাদ




agario agario - agario