২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বিয়ের প্রলোভনে কিশোরী ধর্ষণ

প্রতীকী ছবি - নয়া দিগন্ত

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছে এক বখাটে যুবক। পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে ওই কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের পর অভিভাবকের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় জড়িত ধর্ষকের নাম মোখলেছুর রহমান (২০)। এদিকে এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ জানায়, উপজেলার খলাভাঙ্গা গ্রামের জামির উদ্দিন সপরিবারে নরসিংদীর একটি ইটভাটায় কাজ করতেন। একই ভাটায় সপরিবারে কাজ করতেন প্রতিবেশি উপজেলা হালুয়াঘাটের মোকামিয়া গ্রামের দুলাল মিয়া। উভয় পরিবার সেখানে বসবাস করা অবস্থায় জামির উদ্দনের কিশোরী (১৪) কন্যার সাথে দুলাল মিয়ার ছেলে মোখলেছুরের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

একপর্যায়ে ইটের মৌসুম শেষ হয়ে গেলে উভয় পরিবার বাড়িতে চলে আসে। এমতাবস্থায় গেল বছরের ৩ অক্টোবর ওই কিশোরীকে বিয়ে করার কথা বলে মোখলেছুর ভাগিয়ে নিয়ে ঢাকায় চলে যায়। সেখানে রেখে ফুসলিয়ে অবৈধভাবে কিশোরীর সাথে একাধিকবার মেলামেশা করে। কয়েকদিন পর কিশোরীর খালাকে ফোন করে নিয়ে যেতে বললে ওই কিশোরীকে পরিবারের সদস্যরা উদ্ধার করে।

পরে ধর্ষণের শিকার কিশোরীর পিতা জামির উদ্দিন বাদী হয়ে ২০১৮ সালের ৯ ডিসেম্বর শেরপুর আদালতে অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে আদালত নালিতাবাড়ী থানা পুলিশকে এজাহার গ্রহণের নির্দেশ দেন।

এরই প্রেক্ষিতে মামলাটি আমলে নেয় থানা পুলিশ। পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সবুর ১৬ জানুয়ারি বুধবার জবানবন্দি গ্রহণের জন্য কিশোরীকে থানা হেফাজতে নেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সবুর ও নালিতাবাড়ী থানার ওসি আবুল খায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme