১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

জামালপুরে বিএনপির মানববন্ধন

-

সরকারকে উদ্দেশ করে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটি ময়মনসিংহ বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও জামালপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ্ মো: ওয়ারেছ আলী মামুন বলেছেন, কোটি কোটি মানুষের প্রাণের দাবি এই স্বৈরাচার সরকারের পতন ঘটানো। তাই সরকারকে পদত্যাগ করে সকল দলের সাথে আলোচনা করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীন অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। অন্যদিকে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সাজানো ও মিথ্যা মামলায় নির্জন কারাগারে অন্তরিত রেখেছেন। তাকে সুচিৎসার ব্যবস্থা না করে মৃত্যু দিকে ঠেলে দিচ্ছেন। হাজার হাজার মামলা বিচারাধীন থাকার পরেও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে শুধুমাত্র খালেদা জিয়ার মামলা জেলখানায় আদালত বসিয়ে তাকে সাজা দেওয়ার ষড়যন্ত্র করছেন। এখনো সময় রয়েছে, সেই ষড়যন্ত্র থেকে সড়ে আসুন। বেগম খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করুন এবং অবিলম্বে তাকে জামিনে মুক্তি প্রদান করুন। অন্যথায় আগামী দিনে গণতন্ত্রের মুক্তির আন্দোলনে নিজেদের জীবন বাজি রেখে সংগ্রাম করে এই স্বৈরাচার সরকারের পতন ঘটাবো এবং খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জামালপুরে জেলা বিএনপির আয়োজনে আজ সোমবার দুপুরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

অ্যাডভোকেট শাহ্ মো: ওয়ারেছ আলী মামুন বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে ষড়যন্ত্রমূলক আরো মিথ্যা মামলা দিয়ে আন্দোলনকে স্থিমিত করা যাবে না। আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সকল কর্মসূচি পালন করার পরেও জামালপুরে কয়েকদিন আগে সরকারি দলের নেতাদের নির্দেশে আমাদের গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের নামে মামলা হয়েছে। জামালপুরের পুলিশ প্রশাসনকে উদাত্ত আহ্বান জানাবো, নিজেদের বিবেকের কাছে প্রশ্ন করে দেখুন। আজকে আমরা ইচ্ছা করতে জামালপুরকে অশান্ত করে তুলতে পারি। আপনার পুলিশ প্রশাসনের ক্ষমতা নাই বিএনপির এই হাজার হাজার নেতাকর্মীকে প্রতিরোধ করার। জামালপুরের শান্তি শৃঙ্খলার স্বার্থে বিএনপি গণতান্ত্রিক রাজনীতিকে বিশ^াসী করে বিধান আমরা সমস্ত কিছু ধৈর্য সহকারে মোকাবেলা করে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছি। এতেও যদি আপনাদের তৃপ্তি না আসে, সুরসুরানি দেয়ার চেষ্টা করেন। তবে আগামী দিনে শুভ পরিণতি বয়ে আসবে না।

বিএনপির নেতা গোলাম রব্বানীর সঞ্চালনায় মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা আনিছুর রহমান বিপ্লব, শহিদুল হক খান দুলাল, আহছানুজ্জামান রুমেল, শহর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লিয়াকত আলী, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাইন উদ্দিন বাবুল, জেলা যুবদলের সভাপতি ফিরোজ মিয়া, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সজীব খান, শহর ছাত্রদলের আহ্বায়ক শাহ্ মাসুদ প্রমুখ।

এদিকে একই সময় সকালবাজার এলাকায় পৃথকভাবে মানববন্ধন করেছে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহম্মেদ, জেলা জাসাসের সাবেক সভাপতি হাফিজুল ইসলাম সজল, বিএনপি নেতা সৈয়দ হাবিবুর রশিদ, বিষ্ণ চন্দ্র মন্ডল, আব্দুস সালাম আজাদ, মাহবুবুর রহমান জিলানী, আব্দুস সাত্তার, বেলাল হোসেন, ফজলুর রহমান, মোতালেব হোসেন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সরকার ষড়যন্ত্রমূলকভাবে কারাগারে আদালত বসিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের মনোবল ভেঙ্গে দেওয়ার চেষ্টা করছে। কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করেই এই অবৈধ এবং স্বৈরাচার সরকারের পতন ঘটাবো এবং খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো। এজন্য রাজপথে নিজেদের জীবন বিলীন করে হলেও গণতন্ত্র মুক্তির আন্দোলন-সংগ্রাম সফল করবো। ইনশাআল্লাহ।


আরো সংবাদ