২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ময়মনসিংহে চিকিৎসা অবহেলায় মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল বন্ধের নির্দেশ

-

চিকিৎসা ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের অবহেলায় প্রগ্রেসিভ স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী রাফিয়ার মৃত্যুর ঘটনায় ময়মনসিংহ শহরের চরপাড়া এলাকার বেসরকারি হাসপাতাল ‘শিলাঙ্গণ’ সাময়িক বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন সিভিল সার্জন। সোমবার সন্ধ্যায় সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে ওই নির্দেশ প্রদান করা হয়। এর আগে ওই ক্লিনিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক, বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়, জেলা সিভিল সার্জন ও জেলা প্রশাসনে অভিযোগ ও স্মারকলিপি প্রদান করেন রাফিয়ার পিতা কথাশিল্পী মাহমুদ বাবু। এসময় বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

সিভিল সার্জন ডা. আব্দুর রউফ সাংবাদিকদের জানান, মেধাবী ছাত্রী রাফিয়ার মৃত্যু নিয়ে বেসরকারি হাসপাতাল ‘শিলাঙ্গণ’ কর্তৃপক্ষ ও একজন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়ার পর হাসপাতালটি সাময়িক বন্ধের নির্দেশ দিয়ে চিঠি প্রেরণ করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৬ আগস্ট শহরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও কথাশিল্পী মাহমুদ বাবুর শিশু কন্যা রাফিয়ার তলপেটে ব্যথা অনুভূত হলে গাইনী চিকিৎসক ডাঃ শিলা সেনের শরণাপন্ন হলে নিজের মালিকাধীন ক্লিনিক শিলাঙ্গনে ভর্তি করেন। ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ডা. মনির হোসেন ভূইয়া দুইদিন ধরে নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে এপেন্ডিসাইডস হওয়ায় ভোর ৬ টায় অপারেশন করেন। এরপর রাফিয়ার অবস্থার অবনতি হলে তাকে অপর একটি ক্লিনিকের আইসিইউতে ভর্তি করার কিছুক্ষণ পর মৃত ঘোষণা করা হয়।

এ ঘটনায় গত কয়েকদিন ধরে শহরবাসি ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেসরকারি হাসপাতাল ‘শিলাঙ্গণ’ এবং ওই হাসাতালের মালিক ডা. শীলা সেন ও সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ডা. মনির হোসেন ভূইয়াকে সরব হয়ে উঠে। পরে ফুঁসে উঠে ময়মনসিংহের সচেতন নাগরিকগণ। মেধাবী ছাত্রী রাফিয়ার মৃত্যুর জন্য দায়ী চিকিৎসক ও ক্লিনিক মালিকের দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবিতে যৌথভাবে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে যৌথভাবে মহিলা পরিষদ, উদীচী, যুব ইউনিয়ন, ছাত্র ইউনিয়ন, প্রগতি লেখক সংঘসহ বিভিন্ন সংগঠন।


আরো সংবাদ

সকল