২২ জুলাই ২০১৮

ফুলবাড়ীয়ায় উচ্ছেদের ২ বছর পর নিজ বাড়ীতে গেলো এক পরিবার

-

ফুলবাড়ীয়া উপজেলার বরুকা গ্রামের প্রভাবশালীদের মিথ্যে মামলা ও মারপিটে নিজ বাড়ীঘর ছাড়া ২৫ সদস্যের পরিবার উচ্ছেদের ২ বছর পর সোমবার ১২ টার দিকে পুলিশের সহায়তায় বাড়ীতে উঠেছেন। এ সময় সহকারী পুলিশ সুপার (শিক্ষানবিশ) রেওজুয়ান সিদ্দিকী, ফুলবাড়ীয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ কবিরুল ইসলাম, কুশমাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামছুল হক উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলার বরুকা গ্রামের রহুল আমীনের ৪ ভাইকে পূর্ব বিরোধের জের ধরে পাশের বাড়ীর আঃ হাই মাষ্টার ও তার পুত্ররা মারপিট করে বাড়ীঘর থেকে ২ বছর আগে বের করে দেন। জবরদখল করে নেয় ঘরবাড়ী। ২৫ সদস্যের ঐ পরিবার ২ বছর মানবেতর জীবন যাপনের পর ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার সৈয়দ নূরুল ইসলামের সাথে সম্প্রতি সাক্ষাত করেন। পুলিশ সুপারের নির্দেশে সোমবার দুপুর ১২ টায় সময় ফুলবাড়ীয়া থানার ওসির নেতুত্বে পুলিশ গিয়ে উচ্ছেদ হওয়া ২৫ সদস্যের পরিবারকে বাড়ীতে নিয়ে যান। জবরদখল মুক্ত করে তাদেরকে বাড়ীতে উঠিয়ে দিয়ে আসেন।
২ বছর পর নিজ বাড়ীতে গিয়ে চোখের জল ফেলে রহুল আমীনের বৃদ্ধ মা বিবি হাওয়া জানান, এটা আমার স্বামীর বাড়ী। এই বাড়ীতে কত স্মৃতি জড়িত। আমি এই বাড়ীতেই মরতে চাই।
ফুলবাড়ীয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ কবিরুল ইসলাম জানান, অমানবিকভাবে ২৫ সদস্যের পরিবারকে ঘরবাড়ী থেকে উচ্ছেদ মানবতা বিভর্জিত কাজ। তারা আমাদের সহায়তা চেয়েছে আমরা সহায়তা করেছি। পরবতীতে প্রভাবশালী মহল যাতে ঐ পরিবারের উপর অত্যাচার নির্যাতন করতে না পারে সে জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।


আরো সংবাদ