২২ জুলাই ২০১৮

ত্রিশালে আক্রোশ মেটাতে বিষ দিয়ে ঘেরের মাছ নিধন

-

ময়মনসিংহের ত্রিশালে আমিরাবাড়ী ইউনিয়নের গুজিয়াম গ্রামের রফিকুল ইসলামের মাছের ঘেরে বিষ দিয়ে ২৫ লাখ টাকার মাছ নিধন করেছে দুর্বৃত্তরা।
জানা গেছে, ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে তিন একর জমিতে খনন করে একটি পুকুরে ১৮ হাজার পাঙ্গাস সহ বিভিন্ন প্রজাতির ১ লাখেরও বেশি মাছ পালন করছিলেন উপজেলার আমিরাবাড়ী ইউনিয়নের গুজিয়াম গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে রফিকুল। কয়েকদিন আগে পরিমাপ করে দেখেছিলেন ওই পাঙ্গাসগুলো মাছ ৩০টায় এক মন ওজনের হয়েছে। ওই মাছগুলোকে এ পর্যায়ে আনতে দিনরাত পরিশ্রমের পাশাপাশি রফিকুলের ব্যয় হয়েছিল ২৫ লাখ টাকা। বুধবার রাতে দুর্বৃত্তরা ওই পুকুরে ছিটিয়ে দেয় মাছ মারার বিষের ট্যাবলেট। সকালে মাছের খাদ্য দিতে গিয়ে ফিসারিতে গিয়ে দেখেন পুকুরের সমস্ত মাছ মরে ভেসে উঠেছে। রফিকুলের কান্নার আওয়াজ শুনে ছুটে আসেন তার বাড়ির লোকজন ও প্রতিবেশীরা।
দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, জেলে ও প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় পুকুরের মরা মাছগুলো উঠানো হচ্ছে পাড়ে। মরা মাছের দিকে তাকিয়ে হাউমাউ করে কাঁদছেন রফিকুল। বিলাপ করতে করতে বলছিলেন, তোদের কোন জিদ থাকলে আমারে মারতি, আমার বহু কষ্টে লালন-পালন করা মাছগুলোরে ক্যান মারলি।
স্থানীয়রা তাকে শান্তনা দেওয়ার চেষ্টা করছেন। কি কারনে এমন মর্মাহত ঘটনা ঘটেছে তা বলতে পারছে না কেউ। আমিরাবাড়ী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্বে থাকলেও কারো সঙ্গে তার কোন বিবাদ ছিল না বলে জানান সর্বস্ব হারানো রফিকুল। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে ত্রিশাল থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন তিনি।
রফিকুল ইসলাম জানান, ব্যাংক লোনসহ ২৫ লাখ টাকা খরচ করেছিলেন ওই পুকুরে। কে বা কারা বিষ দিয়ে সব মাছ মেরে ফেলেছে। এখন আসল লাভ সবই পানিতে ভাসছে।


আরো সংবাদ