২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

হঠাৎ ভূপেন হাজারিকার সম্মাননা নিয়ে বিতর্ক কেন

হঠাৎ ভূপেন হাজারিকার সম্মাননা নিয়ে বিতর্ক কেন
হঠাৎ ভূপেন হাজারিকার সম্মাননা নিয়ে বিতর্ক কেন - সংগৃহীত

ভারতের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামে জনপ্রিয় গায়ক জুবিন গর্গের বিরুদ্ধে দেশের সর্বোচ্চ সম্মান 'ভারতরত্ন'কে অপমান করার অভিযোগে এফআইআর করেছে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির শাখা সংগঠন। এ বছর ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে আসামের গর্ব ভূপেন হাজারিকাকে মরণোত্তর ভারতরত্ন খেতাব দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে সরকার।

কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়াতে সেই সিদ্ধান্তকে গালিগালাজ করে জুবিন গর্গ রাষ্ট্র এবং শিল্পী ভূপেন হাজারিকার চরম অবমাননা করেছেন বলে বিজেপি নেতাদের অভিযোগ।

সম্প্রতি ভারতের পার্লামেন্টে বাংলাদেশ থেকে আসা হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে যে সংশোধনী বিলটি পাস হয়েছে, আসামে তার বিরুদ্ধে তীব্র বিক্ষোভ চলছে এবং জুবিন গর্গও তাতে সামিল হয়েছেন। এখন পরলোকগত ভূপেন হাজারিকার নামও জড়িয়ে যাওয়ায় সেই বিতর্ক নতুন মোড় নিয়েছে।

বাংলাদেশ বা পাকিস্তান থেকে আসা অমুসলিমদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দিতে বিজেপির আনা বিলটি গত ৮ জানুয়ারি লোকসভায় পাস হওয়ার পর থেকেই আসাম-সহ গোটা উত্তর-পূর্ব ভারতে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চলছে।

বিজেপিকে এমন কথাও শুনতে হচ্ছে যে তারা এই চুক্তির মাধ্যমে আসামের সঙ্গে চরম বিশ্বাসঘাতকতা করেছে।

এই পটভূমিতেই ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘোষণা করা হয়, আসামের প্রিয় সন্তান, 'সুধাকন্ঠ' বলে পরিচিত প্রয়াত ভূপেন হাজারিকাকে ভারতের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান ভারতরত্নে ভূষিত করা হবে।

কিন্তু আসামের ক্ষোভকে প্রশমিত করতেই এই ঘোষণা কি না, সেই চর্চাও শুরু হয়ে যায় প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই।

এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়ে মাত্র সাত সেকেন্ডের একটি অডিও ক্লিপ - যাতে ভারতরত্নকে চূড়ান্ত অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে শোনা যায় - এবং অনেকেই ধারণা করেন ওই অডিও ক্লিপের কন্ঠস্বরটি ছিল অসমিয়া গায়ক জুবিন গর্গের।

ওই কথাগুলো তারই কি না, জুবিন গর্গ নিজে এখনও সে ব্যাপারে হ্যাঁ বা না কিছুই বলেননি।

কিন্তু নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে তিনি বিজেপির সঙ্গে সংঘাত লুকোনোরও কোনও চেষ্টা করছেন না - আর তার প্রতিফলন দেখা গেছে এ সপ্তাহে রিলিজ করা তার নতুন গানেও, যার নাম 'পলিটিক্স নকোরিবা বন্ধু'।

নোংরা রাজনীতি করার চেয়ে দুবেলা দুমুঠো খুঁটে খাওয়াও ভাল, নতুন গানে তিনি সেই পরামর্শই দিয়েছেন ভক্তদের।

মজার ব্যাপার হল, আড়াই বছর আগে রাজ্যে বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য যে গান বাঁধা হয়েছিল, তাতেও গলা দিয়েছিলেন জুবিন।

তার জন্য এখন প্রকাশ্যে আফসোস করছেন তিনি - ফিরিয়ে দিতে চেয়েছেন সম্মানীও - তবে এরই মধ্যে ভারতরত্ন তথা ভূপেন হাজারিকাকে অপমান করার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে হোজাই জেলাতে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি।

দলের কিষাণ মোর্চার নেতা সত্যরঞ্জন বোরা ওই এফআইআর করার পর বলেন, ‘জুবিন গর্গ শুধু ভারতরত্ন খেতাবকে নয়, ভারতকেও অপমান করেছেন - তাই তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া জরুরি’।

বিজেপি নেতারা আরও দাবি করেন, অডিও ক্লিপের গলাটি যে জুবিন গর্গেরই সে ব্যাপারে তারা নিশ্চিত - এবং ভূপেন হাজারিকার এই অপমান তারা কিছুতেই মেনে নেবেন না।

কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ভূপেন হাজারিকাকে ভারতরত্ন দিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে চাইছে বলে যারা অভিযোগ করছেন, তাদের এক হাত নিয়েছেন আসামের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোওয়ালও।

সোনোওয়াল বলেন, ‘দেশ ও জাতির প্রতি ভূপেনদার অবদানের এই স্বীকৃতিতে যখন সকলের আনন্দিত হওয়া উচিত, তখন এই ধরনের মন্তব্য খুবই দুর্ভাগ্যজনক।’

গোটা বিতর্ক নিয়ে জুবিন গর্গ নিজে এখনও মুখ খোলেনি। সোশ্যাল মিডিয়াতেও না, গণমাধ্যমের সামনেও না।

তবে তার গানের কথা যা-ই বলুক, নাগরিকত্ব বিলকে কেন্দ্র করে বিতর্কে আসামের দুই যুগের দুই বরেণ্য শিল্পীর নাম যেভাবে জড়িয়ে পড়েছে তাতে আগাপাশতলা রাজনীতি দেখতে পাচ্ছেন অনেকেই।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme