২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গায়ক আসিফ কারাগারে

আসিফ আকবর - ফোকাস বাংলা

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। 

আজ বুধবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে আসিফ আকবরকে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে নিয়ে আসা হয়। পরে তাঁকে কিছু সময় আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়।

দুপুরের পর আসিফ আকবরকে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম কেশব রায় চৌধুরীর আদালতে হাজির করা হয়। তখন পুলিশ তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে। অন্যদিকে রিমান্ড বাতিল চেয়ে শিল্পীর জামিন আবেদন করেন তাঁর আইনজীবী।

শুনানি শেষে আদালত আসিফ আকবরকে পাঁচ দিনের রিমান্ড নেওয়ার আবেদন নামঞ্জুর করে দেন। পরে জামিন নামঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠান আদালত।

এর আগে গীতিকার, সুরকার ও গায়ক শফিক তুহিনের করা মামলায় মঙ্গলবার রাতে সিআইডি পুলিশ আসিফ আকবরকে তার অফিস থেকে গ্রেফতার করে।

অনুমতি ছাড়া গীতিকার, সুরকার ও শিল্পিদের কয়েকশ গান বিক্রি ও শফিক তুহিনকে ফেসবুকে অশালীন মন্তব্য ও হুমকির অভিযোগে গত সোমবার তার ‍বিরুদ্ধে মামলা করেন শফিক তুহিন। মামলায় আসিফ ছাড়া আরো ৪-৫ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়।

অবশ্য এর আগেও বিভিন্ন সময়ে আসিফ তার ফেসবুক লাইভে একাধিকবার সাংবাদিকদের গালিগালাজ ও হুমকি দিয়েছেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল। 

শফিক তুহিনের করা মামলায় অভিযোগে বলা হয়, গত ১ জুন রাত ৯টার দিকে একটি চ্যানেলের ‘সার্চ লাইট’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন, আসিফ অনুমতি ছাড়াই তার তার গানসহ অন্য গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীদের ৬১৭টি গান সবার অজান্তে বিক্রি করেছেন।
পরে তিনি বিভিন্ন মাধ্যমে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, আসিফ তার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আর্ব এন্টারটেইনমেন্টের চেয়ারম্যান হিসেবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে গানগুলো ডিজিটাল রূপান্তর করে প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল অর্থ উপার্জন করেছেন।

অভিযোগে শফিক তুহিন বলেন, ঘটনা জানার পর তিনি ২ জুন রাতে অনুমোদন ছাড়া গান বিক্রির বিষয়টি উল্লেখ করে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে একটি পোস্ট দেন।

সেই পোস্টে আসিফ অশালীন মন্তব্য ও হুমকি দেন। পরের দিন রাত ১০টার দিকে আসিফ তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে লাইভে আসেন। লাইভে শফিক তুহিনের বিরুদ্ধে অবমাননাকর, অশালীন ও মিথ্যা বক্তব্য দেন।

আসিফ লাইভে শফিক তুহিনকে শায়েস্তা করবেন বলেও হুমকি দেন। পাশাপাশি ভক্তদের উদ্দেশ্যে বলেন, শফিক তুহিনকে যেখানেই পাবেন, সেখানেই প্রতিহত করবেন।
আসিফের এই বক্তব্যের পর তার ভক্তরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শফিক তুহিনকে হত্যার হুমকি দেন। শফিক তুহিন তার মামলায় উসকানি ও মানহানিরও অভিযোগ করেন।


আসিফ আকবরের জন্ম ও বেড়ে ওঠা কুমিল্লায়। বিরহের গান দিয়েই শ্রোতাদের কাছে বেশি জনপ্রিয় তিনি।

তাঁর প্রথম অ্যালবাম ‘ও প্রিয়া’ এতটাই জনপ্রিয় হয় যে এখন পর্যন্ত ৫০ লাখেরও বেশি কপি বিক্রি হয়েছে এই অ্যালবামের।

অবশ্য গানের ক্ষেত্রে তিনি সবসময়েই অর্থনৈতিক দিক বিবেচনায় রাখতেন। বছরখানেক আগে সাংবাদিক সম্মেলন করে গান ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি।

কিন্তু এবার ঈদে নতুন অ্যালবাম ‘এক্স প্রেম’ দিয়ে আবার গানের জগতে ফিরেছেন আসিফ।

গানের বাইরে রাজনীতির সাথেও সরাসরি যুক্ত রয়েছেন আসিফ।

গানের চেয়ে রাজনীতিকে বেশি প্রাধান্য দিলেও রাজনীতি করে শিল্পী হিসেবে শ্রোতা হারিয়েছেন বলে মনে করেন তিনি।

 


আরো সংবাদ