২৪ জানুয়ারি ২০২০

সপরিবারে ডা: সারওয়ারকে হত্যাচেষ্টা, ফরহাদের দোষ স্বীকার

-

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ডা: সারওয়ার আলীর বাসায় ঢুকে তাকে সপরিবারে হত্যাচেষ্টার মামলায় ফরহাদ নামের এক যুবক দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দিয়েছেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই সুকান্ত সাহা গতকাল মঙ্গলবার আসামিকে আদালতে হাজির করেন। ফরহাদ স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।
আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার সিএমএম জবানবন্দী রেকর্ড করার জন্য ম্যাজিস্ট্রেট সারাফুজ্জামান আনছারীকে দায়িত্ব দেন। এরপর ম্যাজিস্ট্রেট আসামির জবানবন্দী রেকর্ড করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। গত সোমবার ভোরে উত্তরা থেকে ফরহাদকে গ্রেফতার করে পিবিআই। তার বাড়ি নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দায়। এ দিকে ১০ জানুয়ারি বাড়ির দারোয়ান হাসান এবং গাড়িচালক হাফিজুল ইসলাম দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দিয়েছেন। বর্তমানে তারা কারাগারে রয়েছেন।
প্রসঙ্গত, গত ৫ জানুয়ারি রাতে দুর্বৃত্তরা উত্তরার ৭ নম্বর সেক্টরে সারওয়ার আলীর বাড়ির তৃতীয় তলায় গিয়ে তার মেয়ে সায়মা আলীর বাসার দরজায় ধাক্কা দেয়। দরজা খুলে দেয়া হলে দুর্বৃত্তরা ভেতরে গিয়ে সারওয়ার আলীর মেয়ে ও জামাতাকে ছুরিকাঘাত করে হত্যার চেষ্টা চালায়। পরে বাড়ির চতুর্থ তলায় গিয়ে সারওয়ার আলী ও তার স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা করে। সারওয়ার আলী নিজে বাদি হয়ে থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা করেন।
ঢাবি ভিসির নিন্দা : এ দিকে ডা: সারওয়ার আলী হত্যা প্রচেষ্টার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামান। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব ডা: সারওয়ার আলীর ওপর হামলা ও হত্যাপ্রচেষ্টা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির এক আঘাত। তিনি হামলাকারী অপশক্তিকে অবিলম্বে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।


আরো সংবাদ