২৭ জানুয়ারি ২০২০

আটাবে সম্মিলিত ফোরাম পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী

-

অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশের (আটাব) কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচনে মনসুর আহমদ কালামের নেতৃত্বাধীন আটাব সম্মিলিত ফোরাম পূর্ণ প্যানেলে বিজয়ী হয়েছে। ২৯টি পদের মধ্যে সব ক’টিতেই এই প্যানেল জয় লাভ করে। জিন্নুর আহমেদ চৌধুরী দিপুর নেতৃত্বাধীন আটাব গণতান্ত্রিক ঐক্যফ্রন্ট ছিল প্রতিদ্বন্দ্বী প্যানেল।
সম্মিলিত ফোরামের প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্বে ছিলেন হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম। গণতান্ত্রিক ঐক্যফ্রন্টের প্যানেলের প্রধান সমন্বয়ক ছিলেন সংগঠনটির বিদায়ী ও টানা তিন মেয়াদের সভাপতি এস এন মঞ্জুর মোরর্শেদ মাহবুব। এই নির্বাচনকে এই দুই জনপ্রিয় নেতার মর্যাদার লড়াই হিসেবে দেখা হচ্ছিল। নয়াপল্টনে একই ভবনের একই ফ্লোরেই দু’টি সংগঠনের কার্যালয় মুখোমুখি অবস্থানে।
ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে, চট্টগ্রামে পূর্ব নাসিরাবাদ ষোলশহর ২ নম্বর গেটের জিননুরাইন কনভেনশন সেন্টারে এবং সিলেটের জিন্দাবাজার গ্যালারিয়া শপিং কমপ্লেক্সে আটাব আঞ্চলিক কার্যালয়ে গত শনিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একযোগে ভোট গ্রহণ হয়।
নির্বাচনে ভোটার ছিলেন আড়াই হাজারেরও বেশি। ২০১৯-২১ সেশনের জন্য ২৯ জন কার্যনির্বাহী সদস্য নির্বাচিত করেন ভোটাররা। এর মধ্যে ঢাকা জোনের ১৭ জন এবং চট্টগ্রাম ও সিলেটের ছয়জন করে।
নির্বাচিত নির্বাহী পরিষদের সদস্যদের মধ্য থেকেই সভাপতি ও মহাসচিবসহ পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত হবে। সংগঠনটির নির্বাচনী বোর্ডের চেযারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী গত শনিবার রাতে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন।
নির্বাচিত ২৯ জন হলেনÑ মনসুর আহমেদ কামাল (৭৮০ ভোট), মোতাহের হোসাইন বুলবুল (৭৭৫), মো: আবুল কাসেম (৭৬৭), এফআর করিম কাজল (৭৬৫), আজহারুল কবির চৌধুরী (৭৬৫), এইচ বি এম শোয়াবে রহমান (৭৪৭), নজির আহমেদ আজাদ (৭৪৬), মো: গিয়াস উদ্দিন (৭৪৫), গোলাম কিবরিয়া (৭৪৪), মাওলানা ফজলুর রহমান (৭৪৩), মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন টিপু (৭৪২), মো: অলিউর রহমান (৭৪১), নির্মল চন্দ্র বৈরাগি ( ৭৩৯), মো: কাওসার হোসাইন আফরাদ ( ৭৩৯), মাহমুদুল হাসান (৭৩৯), গিয়াস উদ্দিন আহমেদ আমজাদ (৭৩৯), মো: মুসলেহ উদ্দিন (৭৩৭), মো: আবদুল খালেক (৭৩৬), মো: হেলাল (৭৩৪), মাহমুদুল হক পিয়ারু (৭৩২), আকবর আলী (৭৩০), মো: জিয়া উদ্দিন চৌধুরী (৭৩০), মো: মোকসেদুর রহমান (৭২৭), মো: জুনায়েদ গুলজার (৭২৫), মো: মাজহারুল হক ভূঁইয়া (৭১৪), মো: ফরহাদ গনি (৭১৯), মো: দেলাওয়ার হোসাইন ভূঁইয়া (৭১৪), মো: মোরশেদুল আলম (৭১৪), এ এস এম সাইফুল ইসলাম (৬৯৪)।
গণতান্ত্রিক ঐক্যফ্রন্টের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কয়েকজন হলেনÑ আফসিয়া জান্নাত সালেহ (৬৯৩), এম এ রশীদ শাহ সম্রাট (৬৯১), এইচ এম মুজিবুল হক শুক্কুর (৬৮৪), মো: ইদ্রিস মিয়া (৬৮০), মো: ওয়াহিদুল আলম (৬৭৯), শরাফত উল্লাহ শহিদ (৬৭৯), জিন্নুর আহমেদ চৌধুরী দীপু (৬৭৮), শফিক উল্লাহ নান্টু (৬৬৬), তৌফিক উদ্দিন আহমেদ (৬৬৫), মো: রফিকুল ইসলাম (৬৬৫), মনসুর আলী খান ( ৬৬৫), মুফতি কফিল উদ্দিন সরকার সালেহী (৬৬৩), জিয়াউর রহমান খান রেজোয়ান (৬৬২ )।


আরো সংবাদ

হামলার পর ইশরাকের বাসায় এসে যা বললেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার (১৫৭৬৮)ওমর আবদুল্লাহকে দেখে চিনতেই পারলেন না, কষ্টে মুষড়ে পড়ছেন মমতা (১৩০৮৮)হামলার পর জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকে যে ঘোষণা দিলেন ইশরাক (৯০৮৩)চীনের পক্ষে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ সম্ভব না, বলছেন বিজ্ঞানীরা (৬৯৫২)স্ত্রী হিন্দু, তিনি মুসলিম, ছেলেমেয়েরা কোন ধর্মাবলম্বী? মুখ খুললেন শাহরুখ (৬৫৮৮)সাকিবের বাসায় প্রাধানমন্ত্রীর রান্না করা খাবার (৬৪৭৬)শ্বাসরোধ করে হত্যার রুদ্ধশ্বাস রহস্যের উদঘাটন (৫৬৬১)কোলে তুলে দেড়ঘণ্টা লাগাতার উদ্দাম নাচ, হিজড়াদের 'অত্যাচারে' নবজাতকের মৃত্যু (৫১০৯)সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস (৪৭৮১)ইশরাকের গণসংযোগ জনস্রোতে পরিণত (৪৫৯৬)