১৪ নভেম্বর ২০১৯

বিভিন্ন সংগঠনের বিক্ষোভ সমাবেশ ভোলায় হতাহতের ঘটনায় সারা দেশে নিন্দা প্রতিবাদ

-

ভোলায় পুলিশের গুলিতে হতাহতের ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল দেশের বিভিন্ন স্থানে তৌহিদী জনতার ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়েছে। এ ছাড়া বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনও নিন্দা-প্রতিবাদ জানিয়েছে। সমাবেশে বক্তারা এই ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।
নেত্রকোনা সংবাদদাতা জানান, ভোলায় প্রতিবাদী তৌহিদি জনতাকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে গতকাল দিনভর বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে উত্তাল ছিল নেত্রকোনা শহর। বেলা সাড়ে ১১টায় স্থানীয় বড় মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে ওলামা মাশায়েখ পরিষদ ও তৌহিদী জনতা এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবারো বড় মসজিদ প্রাঙ্গণে এসে সমাবেশে মিলিত হয়।
এ সময় বক্তব্য রাখেন, নেত্রকোনা জেলা ইসলামী ঐক্যজোটের সভাপতি হাফেজ দেলোয়ার হোসাইন, নির্বাহী সভাপতি মাওলানা শরীফ উদ্দিন তালুকদার, সিনিয়র সহসভাপতি মাওলানা আবুল কাশেম, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবু সায়েম খান, মদিনা ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরসের কর্ণধার হাফেজ মো: আব্দুল্লাহ, প্রচার সম্পাদক মাওলানা আব্দুল হালিম, জেলা যুব খেলাফত আন্দোলনের আহ্বায়ক আব্দুর রহিম প্রমুখ।
শরীয়তপুর সংবাদদাতা জানান, শরীয়তপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বিভিন্ন ইসলামী সংগঠন ও তৌহিদি জনতা। গতকাল সকালে জেলা শহরের পালং উত্তর বাজার জামে মসজিদের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়।
শরীয়তপুর জেলা ওলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা শফিউল্লাহ খানের সভাপতিত্বে ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি, বুড়িরহাট ঐতিহাসিক জামে মসজিদের খতিব মাওলানা সাব্বির আহম্মেদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা ওলামা পরিষদের উপদেষ্টা হাফেজ মাওলানা শওকত আলী, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা আবু বকর, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইদ্রিস কাসেমী, সহ-সভাপথতি মাওলানা খন্দকার শহীদুল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি তোফায়েল আহাম্মেদ কাসেমী, প্রচার সম্পাদক ও জাতীয় ইমাম সমিতি জেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা এমদাদুল হক, শরীয়তপুর কামিল মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা আনোয়ারুল হক, ওলামা পরিষদের শরীয়তপুর সদর উপজেলা সভাপতি মাওলানা মাহাদী হাসান সিরাজী, মাওলানা নুরুজ্জামান খান শরীয়তপুরী, জেলা ইসলামী আন্দোলন যুব কমিটির সভাপতি মাওলানা হাফিজুর রহমান শরীয়তপুরী প্রমুখ।
মাগুরা সংবাদদাতা জানান, ভোলায় তৌহিদি জনতার শান্তিপূর্ণ সমাবেশে পুলিশের গুলিতে হতাহতের ঘটনায় বিচারের দাবিতে গতকাল মাগুরায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহতের ঘটনার প্রতিবাদে বরিশালে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে গতকাল সোমবার সরকারি বজ্রমোহন (বিএম) কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা জানান, গতকাল সোমবার দুপুরে ময়মনসিংহের গফরগাঁও রেলওয়েস্টেশন সংলগ্ন স্থানে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে গফরগাঁও উলামা সমিতি ও তৌহিদি জনতা।
সংগঠনের সভাপতি হাফেজ মো: নূরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও মাওলানা ইউসুফ বিন মনিরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মাওলানা আজিজুর রহমান, মাওলানা মনিরুল ইসলাম, মাওলানা মাহমুদুল হাসান সালমানী, হাফেজ মাওলানা নূরুল ইসলাম, মাওলানা ইসমাঈল হোসেন সিরাজী, মাওলানা জহিরুল ইসলাম, মাওলানা আসাদুজ্জামান, মাওলানা আহাদুর রহমান কবির, মাওলানা এমদাদুল হক, মাওলানা নাদিম হাসান, মাওলানা আসাদউল্লাহ, মাওলানা মাসুদ, মাওলানা রুমান ও হাফেজ ক্বারি শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
দাউদকান্দি (কুমিল্লা) সংবাদদাতা জানান, ভোলায় তৌহিদি জনতার উপর পুলিশি গুলিবর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে গতকাল সোমবার দাউদকান্দি গলিয়ারচর ওয়াজউদ্দিন ফাউন্ডেশন ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসায় এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মাদরাসা সুপার আলহাজ মাওলানা মো: আব্দুর রবের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন মাওলানা আব্দুর রশিদ, হাফেজ মাওলানা রবিউল আলম ও মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ প্রমুখ। সমাবেশে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করা হয়।
ভোলায় পুলিশের আচরণ ক্ষমার অযোগ্য : নূর হোসাইন কাসেমী
আল্লাহ ও রাসূলকে সা: নিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় এক হিন্দু ব্যক্তির অবমাননাকর উক্তির প্রতিবাদে ভোলায় তৌহিদি জনতার বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের গুলিবর্ষণে ব্যাপক প্রাণহানী ও হতাহতের ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন জমিয়ে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী। তিনি বলেছেন, পুলিশের এমন মারমুখী আচরণ সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়িয়ে দিতে উসকানিমূলক এবং ক্ষমার অযোগ্য নিষ্ঠুরতা।
গত রোববার এক বিবৃতিতে জমিয়ত মহাসচিব আরো বলেছেন, ইসলাম অবমাননার মতো এমন স্পর্শকাতর ঘটনার প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশের কর্তব্য ছিল শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে অত্যন্ত সতর্কতার সাথে দায়িত্ব পালন করা। অথচ পুলিশ অত্যন্ত নির্দয়ভাবে তৌহিদি জনতার ওপর শত্রুর মতো ঝাঁপিয়ে পড়েছে।
ইত্তেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া মোহাম্মদপুর ঢাকা
ভোলায় পুলিশের গুলিতে হতাহতের প্রতিবাদে মোহাম্মদপুরে ইত্তেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া মোহাম্মদপুর ঢাকার উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ও জামিআ রাহমানিয়া আরাবিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা মাহফুজুল হক বলেছেন, যখন আল্লাহ, রাসূল সা:, সাহাবায়ে কেরাম ও আহলে বায়াতের বিরুদ্ধে কটূক্তি করা হয় তখন দেশের মসনদে অবস্থানকারী লোকদের মধ্যে কোনো পেরেশানির চাপ দেখা যায় না। উল্টো কটূক্তিকারীদের পক্ষে সাফাই গাওয়া হয়। একজন মুসলমান হিসেবে কটূক্তিকারীর পক্ষে অবস্থান নেয়ার কোনো সুযোগ নেই। এটা ঈমানের সাথে সম্পর্ক। সুতরাং আল্লাহ, রাসূল সা:, সাহাবায়ে কেরাম ও আহলে বায়াতের বিরুদ্ধে কটূক্তিকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের আইন জাতীয় সংসদে পাশ করতে হবে। এ আইন পাশ না হওয়া পর্যন্ত তৌহিদি জনতার আন্দোলন চলবে। বায়তুল জান্নাত মাদরাসার মুহতামিম মুফতি উমর ফারুকের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন, আদাবর বায়তুল আমান মাদরাসার মুহতামিম মুফতি মাহমুদুর রহমান, জামিআ মুহাম্মদিয়ার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা মুহাম্মদ ফয়সাল, জামিআ ওহিদিয়ার মুহতামিম মাওলনা জুবায়ের, মারকাজুল কুরআনের মুহতামিম মাওলানা ইলিয়াছ হামিদী প্রমুখ। সমাবেশে শেষে বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে মোহাম্মদপুর চৌরাস্তায় শেষ হয়।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, মহানবী সা: ও ইসলাম নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি করায় বিপ্লব চন্দ্র শুভর মৃত্যুদণ্ড ও ভোলায় পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত হওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর শাখা। গতকাল সোমবার দুপুরে নগরীর আগ্রাবাদ মোড়ে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিলপূর্ব সমাবেশ থেকে অবিলম্বে বিপ্লব চন্দ্রকে গ্রেফতার ও ভোলায় চারজনকে হত্যার হুকুমদাতাদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানানো হয়।
সংগঠনের নগর সভাপতি জান্নাতুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ধর্মীয় অনুভূতি ও তার সুরক্ষায় কোনো আইন না থাকার কারণে বার বার ধর্মবিদ্বেষীরা ইসলাম ও রাসূল সা:-কে নিয়ে কটূক্তি করার সাহস পাচ্ছে। এ দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমান ও আলেম ওলামারা বারবার ব্লাসফেমি আইন করার দাবি জানিয়ে এলেও সরকার এতে কর্ণপাত করছে না। ফলে আজ বিপ্লব চন্দ্র ও কাল অন্য কেউ এভাবে একের পর আল্লাহ, রাসূল : ও ইসলামের বিরুদ্ধে কুৎসা রটিয়ে মুসলমানদের অন্তরে আঘাত দিয়ে যাচ্ছে। তাই ধর্ম অবমাননা রোধে অবিলম্বে ব্লাসফেমি আইন পাস করে বিপ্লব চন্দ্রকে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে।
এতে আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক, মাওলানা সানাউল্লাহ নূরী, জাতীয় ওলামা মাশায়েখ নেতা মাওলানা মনসুরুল হক জিহাদী, মাওলানা মোসলেহ উদ্দিন, নগর শিক্ষা ও সাংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক ডা: ফরিদ খান, চট্টগ্রাম পশ্চিম জেলা সভাপতি মাওলানা সুলতানুল ইসলাম ভূঁইয়া, ইসলামী যুব আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি তাজুল ইসলাম শাহীন, নগর সহ-প্রচার সম্পাদক মাওলানা তরিকুল ইসলাম, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা মুহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ। সমাবেশ শেষে বিশাল এক মিছিল দেওয়ানহাটস্থ নগর কার্যালয়ের সামনে এস দোয়া মুনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্ত হয়।
এদিকে এক যুক্ত বিবৃতিতে আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত সমন্বয় কমিটির প্রধান সমন্বয়ক মাওলানা এম এ মতিন ও সদস্যসচিব অ্যাডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার বলেন, অলি-আল্লাহর পুণ্যভূমি বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক-সম্প্রীতির দেশ। এ দেশে আবহমান কাল থেকে প্রত্যেক মানুষ শান্তি-সম্প্রীতি বজায় রেখে বসবাস করছে।
পটিয়া-চন্দনাইশ (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, ভোলার বোরহান উদ্দিন উপজেলায় মাদরাসার শিক্ষার্থীসহ চারজনকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে পটিয়া জিরি মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ্ মোহাম্মদ তৈয়ব সাহেবের আহ্বানে পটিয়ার শত শত তৈৗহিদি জনতা বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।
মাদরাসার সহকারী পরিচালক শাহাজাদা মাওলানা হুবাইব বিন তৈয়্যবের সভাপত্বিতে অনুষ্ঠিত সমাবশে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক মাওলানা হুসাইন আল-মাহমুদ, জিরি মহিলা মাদরাসার শিক্ষা পরিচালক মাওলানা হুজাইদা মাহামুদ, চট্টগ্রাম ফয়জুল আবরার মাদরাসার পরিচালক মাওলানা জসিম উদ্দিন জিনজিরা, জিয়াউদ্দিন আল আজাদ প্রমুখ।
পলাশ (নরসিংদী) সংবাদদাতা জানান, ভোলায় পুলিশের গুলিবর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে ও মহানবী সা:-কে নিয়ে কটুক্তিকারীর সর্বোচ্চ বিচারের দাবিতে নরসিংদীর পলাশে বিক্ষোভ মিছিল পালন করা হয়েছে। গতকাল আল খিদমা ওলামা পরিষদের উদ্যোগে এ বিক্ষোভ মিছিল পালন করা হয়। পরে সেখানে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আল খিদমা ওলামা পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি মুফতি আব্দুর রহিম, সহ-সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহাম্মেদ ভৌরবী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি ইফসুফ, প্রচার সম্পাদক কারি মো: ইসমাইল, মাওলানা জহিরু উদ্দিন, মাওলানা মিজানুর রহমান, মাওলানা আলী হোসেন প্রমুখ।
শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগর ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সহযোগী সংগঠন ওলামা-মাশায়েখ আইয়াম্মা পরিষদ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে। শ্রীনগর বাজারে ইসলামী আন্দোলন অফিস হতে মিছিলটি বের হয়ে শ্রীনগর ডাকবাংলো এলাকায় এসে শেষ হয়। পরে ওলামা-মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের শ্রীনগর উপজেলা শখার সভাপতিত্বে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ওলামা-মাশায়েখ আইম্মা পরিষদ মুন্সীগঞ্জ জেলা শাখার জয়েন্ট সেক্রেটারি মুফতি শাহাদাৎ হোসাইন, উপজেলা ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সভাপতি শাজাহান, উপজেলা ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের সেক্রেটারি মুফতি আ: আলিমসহ মুফতি আ: রহমান, সাইফুল ইসলাম,খাইরুল ইসলাম, আ: কাইয়ুুম প্রমুখ।


আরো সংবাদ

ওমানের বিপক্ষে পারলো না জামাল ভূঁইয়ারা ঘুম থেকে তুলে নিয়ে এক সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ! জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় : যুদ্ধাপরাধীদের নামে কলেজের নাম থাকছে না সেদিন শুধু আমিই নুসরাতের পক্ষে ছিলাম : ওসি মোয়াজ্জেম পেঁয়াজের দাম কী কারণে দু’শ টাকা ছাড়াল বাস্তবিক অর্থেই আমরা ম্যাচে নেই : মুমিনুল প্রথম কর্মস্থলে ২ বছর থাকতে হবে চিকিৎসকদের ক্ষুদ্র ঋণ দেয়া শুরু করেছিলেন জাতির পিতা : প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে প্রধানমন্ত্রীকে এমপি হারুনের অনুরোধ নিষিদ্ধ হলেন ম্যানচেস্টার সিটি তারকা সিলভা স্পর্শকাতর বিষয়ে  বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের অনুরোধ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের

সকল