১৭ নভেম্বর ২০১৯

আয়োজক এবং সাফের সমালোচনায় কোচ ছোটন

-

ম্যাচোত্তর সংবাদ সম্মেলনে কান্না আর থামছিল না অধিনায়ক শামসুন্নাহারের। তার টাইব্রেকার মিসের ফলেই যে হার বাংলাদেশের। পরে তিনি নিজেকে সামলিয়ে বলেন, ‘আমরা ভালো খেলেছি। কপাল খারাপ আমার প্রথম টাইব্রেকার শট ক্রসবারে লাগে। আসলে এটা ফুটবল। মেসিরা মিস করে পেনাল্টি।’ যোগ করেন, আমাদের এই দল আগামী সাফে আরো ভালো করবে। সে সাথে আগামী বছরের এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ বাছাই পর্বেও দেশবাসীকে আনন্দে ভাসাবে।
কাল যে ক্রসবারে শামসুন্নাহারের শট প্রতিহত হয় গত বছর ভারতের বিপক্ষে এই বারেই ফাইনালে মনিকা চাকমার শট আঘাত হানে, যা আর সমতা আনতে দেয়নি বাংলাদেশকে। গতকালের এই পুনরাবৃত্তির ফলে আবারো ভারতের কাছে হার বাংলাদেশের। কাল ভুটানের থিম্পুতে অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা সাফের ফাইনালে বাংলাদেশকে টাইব্রেকারে ৫-৩ গোলে হারিয়ে শিরোপা ধরে রাখে ভারত। ৯০ মিনিটের খেলায় কোনো গোল হয়নি।
খেলায় ফুটবলারদের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটন। তবে খেলার সময় লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আয়োজক এবং সাফের সমালোচনা করেন তিনি। তার মতে, ‘ফিফা কোন নিয়মে আছে এক পাশের বাতি না জ্বলা সত্ত্বেও ম্যাচ হয়। রেফারিতো হুমকি দিয়ে বলেন, এই আলোতেই খেলতে হবে।’ যোগ করেন, ভুটানের সাথে আমাদের ম্যাচের সময়ও দুই দফা ফ্লাডলাইটের বাতি নিভে যায়। আমরা বলেছিলাম দিনের আলোতে ফাইনাল ম্যাচ করতে। কিন্তু শোনেনি আয়োজকেরা। কাল ফাইনালে ৫৫ মিনিটের পর ২০-২৫ মিনিট বাতি না থাকায় খেলা বন্ধ ছিল; যা আমাদের খেলায় প্রভাব ফেলেছে। এরপরও বলব বাংলাদেশ ভালো খেলেছে। টাইব্রেকার তো স্্েরফই ভাগ্য।


আরো সংবাদ