১৭ অক্টোবর ২০১৯
ঢাকায় বিক্ষোভ কর্মসূচি কাল

জনগণ এক শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় দিন কাটাচ্ছে : চরমোনাই পীর

-

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করিম বলেছেন, দেশের জনগণ এক শ্বাসরদ্ধকর অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। সাধারণ মানুষের মধ্যে বিরাজ করছে এক অজানা আতঙ্ক। দেশের রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা, শিক্ষাঙ্গণে খুন, নির্যাতন এবং ছাত্রলীগের পৈশাচিক রাজনীতির কারণে সর্বত্র এক ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন বিতর্কিত সরকারের ক্ষমতার দাপটে সর্বত্র মানুষের মধ্যে এক আতঙ্ক বিরাজ করছে। আতঙ্কের মাত্রা ক্রমেই বাড়ছে। বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যার পর ছাত্রলীগের হুমকি-দমকি আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। অপরদিকে বরিশালে যুবলীগ নেতা কর্তৃক একজনকে মল পান করানোর ঘটনায় মানুষ চরম উদ্বিগ্ন।
গতকাল এক বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, ছাত্রলীগের ছাত্র নামধারী সন্ত্রাসী নেতাকর্মীদের চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, দুর্নীতি, হত্যা ও ধর্ষণ অপরাধের মাত্রা সীমা ছাড়িয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকের আওতায় ফেনী নদী থেকে ভারতকে ১.৮২ কিউসেক পানি প্রত্যাহার করার অধিকার দেয়া জাতীয় স্বার্থ বিরোধী সিদ্ধান্ত। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের আগে দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলো ভারতের নিকট বাংলাদেশের স্বার্থ বিকিয়ে না দিয়ে গঙ্গা ও তিস্তা নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় করে দেশে ফেরার আহ্বান জানিয়েছিল। তিনি বলেন, বাংলাদেশের ভেতর দিয়ে ভারতীয় ট্রেন যাতায়াত করার চুক্তি এবং ‘বাংলাদেশের স্বার্থ আদায়ে প্রধানমন্ত্রীর চরম ব্যর্থতায় দেশের জনগণ গভীরভাবে উদ্বিগ্ন ও ক্ষুব্ধ। তিনি বলেন, জাতীয় স্বার্থবিরোধী যেকোনো চুক্তি দেশপ্রেমিক ঈমানদার জনতা রুখে দাঁড়াবে।
শুক্রবার বিক্ষোভ : দেশে ভয়াবহ মদ-জুয়া, খুন, সন্ত্রাস বন্ধের দাবি ও বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদ এবং ভারতের সাথে দেশবিরোধী সব চুক্তি বাতিলের দাবিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলদেশ ঢাকা মহানগর ১১ অক্টোবর শুক্রবার বাদ জুমা রাজধানীর বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। বুধবার বিকেলে সচিবদের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সমাবেশে দলের নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum
portugal golden visa