১৭ অক্টোবর ২০১৯

বশেমুরবিপ্রবির ভিসির পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি ডুজার

-

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) ভিসি অধ্যাপক খন্দকার নাসির উদ্দীনের কর্মকাণ্ড ‘ভিসি সুলভ নয়’ মন্তব্য করে তাকে স্বৈরাচারী আখ্যা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (ডুজা) সভাপতি রায়হানুল ইসলাম আবির।
গতকাল সোমবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে অবস্থিত সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে আয়োজিত এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে এমন মন্তব্য করেন তিনি।
সম্প্রতি বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিক ফাতেমা তুজ জিনিয়াসহ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করায় বিশ্ববিদ্যালয় ভিসির বিরুদ্ধে এই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।
ফাতেমা তুজ জিনিয়াসহ বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীদের ছাত্রত্ব ফিরিয়ে না দিলে এবং বিভিন্ন সময় ক্যাম্পাসে সাংবাদিকদের ওপর হওয়া হামলার বিচার দাবি করেন ডুজা সভাপতি; অন্যথায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিক ও সাংবাদিক সমিতি নিয়ে বশেমুরবিপ্রবি প্রশাসনের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেন আবির।
মানববন্ধনে রায়হানুল ইসলাম বলেন, আমাদের এই দাবি নিয়ে এখানে আসার কথা ছিল না। কিন্তু বশেমুরবিপ্রবির স্বৈরাচার ভিসি; স্বৈরাচার বললাম এ জন্য যে উনি যেসব কাজ করেছেন, সেগুলো আদৌ ভিসি সুলভ আচরণ নয়, তার স্বৈরাচারী কর্মকাণ্ডের জন্য এখানে আমাদের আজ রাজু ভাস্কর্যে দাঁড়াতে হয়েছে। ডুজার সভাপতি বলেন, শুধু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখার কারণে একজন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এর আগেও ক্লাসরুম অপরিষ্কার থাকা নিয়ে লেখার কারণে কয়েকজন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
মানববন্ধনে তিনি বলেন, এরই মধ্যে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় আসছে ভিসি সেখানকার ছাত্রসংগঠনগুলোকে ব্যবহার করে একটি গুণ্ডা বাহিনী গঠন করেছেন। সচেতন শিক্ষার্থীদের কণ্ঠরোধ করার জন্য তাদের লেলিয়ে দেয়া হয়। কিছুক্ষণ আগে আমরা জানতে পেরেছি যে, সর্বশেষ ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের আলোকিত বাংলাদেশের সাংবাদিক শামস ই জেবিনের ওপর রাশা ও সাজিদ নামে দুই গুণ্ডা হামলা চালিয়েছে।
ডুজার সাধারণ সম্পাদক মাহদী আল মুহতাসিম (নিবিড়) বলেন, আমাদের রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ দলিল সংবিধানে আমাদের মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা আছে। সেখানে ভিসি নাসির উদ্দীন শিক্ষার্থীদের অন্যায়ভাবে বহিষ্কার করে সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন। তার এসব কাজ অবৈধ ও স্বৈরাচারী। এ সময় তিনি ভিসি নাসিরের কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে যথাযথ বিচার দাবি করেন।
মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক আল মামুনসহ সংগঠনটির অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
মানববন্ধনে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের মুখপাত্রও ঢাবির শিক্ষক অধ্যাপক ড. আ ক ম জামাল উদ্দীন বলেন, জাতির পিতা যেখানে শুয়ে আছেন সেই স্থানে ভিসি নাসিরউদ্দীন স্বৈরাচারী শাসন প্রতিষ্ঠা করেছেন। কয়েক মাস ধরে তার বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ প্রকাশিত হচ্ছে। তা সত্তে¡ও শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও সরকার এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। শুধু মতপ্রকাশের জন্য তিনি এক ছাত্রীকে বহিষ্কার করেছেন। ওই ছাত্রী শুধু লিখেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাজ কীÑ এ কথা লেখায় তাকে বহিষ্কার করা হয়। এ সময় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভিসির অপসারণ ও বহিষ্কৃতদের ছাত্রত্ব ফিরিয়ে দেয়ার দাবি জানান আ ক ম জামাল উদ্দীন; অন্যথায় মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি প্রদানসহ পরবর্তীতে বৃহত্তর কর্মসূচির ঘোষণা দেবেন বলে জানান তিনি।
এ দিকে সাংবাদিক ফাতেমা তুজ জিনিয়াকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কারের ঘটনা ও তৎপরবর্তী ভিসির কর্মকাণ্ডে গভীর উদ্ধেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্যাম্পাস জার্নালিস্টস ফেডারেশন। এ ঘটনায় ভিসিকে ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছে সারা দেশের ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠনটি।
গতকাল ফেডারেশনের সভাপতি আসিফ ত্বাসীন ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান নয়ন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপিতে চার দফা দাবি জানিয়ে বলা হয়, আগামীকাল বুধবারের মধ্যে ব্যবস্থা না নিলে ১৯ সেপ্টেম্বর, সারা দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আহŸান জানানো হচ্ছে। এ ঘটনায় বুধবারের মধ্যে বশেমুরবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে পুরো ঘটনার ব্যাখ্যা ও তাদের অবস্থান জানাতে বলা হচ্ছে।
বিবৃতিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, কেন্দ্রীয়ভাবে কর্মসূচিটি আগামী বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলায় অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না হলে দেশের সব বিবেকবান নাগরিক, শিক্ষক, সাংবাদিক, সংস্কৃতিকর্মী ও অধিকারকর্মীসহ সর্বস্তরের ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে বৃহত্তর কর্মসূচিতে যাবে ফেডারেশন।
প্রসঙ্গত, গত ২২ আগস্ট প্রতিবেদন তৈরির জন্য ভিসি খোন্দকার নাসির উদ্দিনের বক্তব্য নিতে তার কার্যালয়ে যান ‘ডেইলি সান’ পত্রিকার ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ফাতেমা তুজ জিনিয়া। এ সময় ভিসি তাকে বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেয়া একটি স্ট্যাটাসের ব্যাখা চান। কর্তব্যরত সাংবাদিক স্ট্যাটাসের ব্যাখা দেন। কিন্তু ভিসি তাকে হুমকি-ধমকি দেন এবং অশোভন আচরণ করেন। এরপর গত ১১ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত এক আদেশে ফাতেমা তুজ জিনিয়াকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।


আরো সংবাদ

ট্রাম্পের 'অতুলনীয় জ্ঞানের' সিদ্ধান্তে বদলে গেল সিরিয়া যুদ্ধের চিত্র (৩২১৮৮)ভারতের সাথে তোষামোদির সম্পর্ক চাচ্ছে না বিএনপি (১৮৪৫৫)মেডিকেলে চান্স পেলো রাজমিস্ত্রির মেয়ে জাকিয়া সুলতানা (১৪৯৪৬)তুরস্ককে নিজ ভূখণ্ডের জন্য লড়াই করতে দিন : ট্রাম্প (১৪৭০৩)আবরারকে টর্চার সেলে ডেকে নিয়েছিল নাজমুস সাদাত : নির্যাতনের ভয়ঙ্কর বর্ণনা (১৩৮১৫)পাকিস্তানকে পানি দেব না : মোদি (১১২৭৪)১১৭ দেশের মধ্যে ১০২ : ক্ষুধা সূচকে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের চেয়ে পিছিয়ে ভারত (৮৯৭০)তুহিনকে বাবার কোলে পরিবারের সদস্যরা হত্যা করেছে : পুলিশ (৮৮৮৫)বাঁচার লড়াই করছে ভারতে জীবন্ত কবর দেয়া মেয়ে শিশুটি (৮৬৮৭)এক ভাই মেডিকেলে আরেক ভাই ঢাবিতে (৮৫২৩)



astropay bozdurmak istiyorum
portugal golden visa