১৫ অক্টোবর ২০১৯

২০৩০ সালের মধ্যে দেশে দারিদ্র্য শূন্যের কোটায় আসবে

সংসদে পরিকল্পনা মন্ত্রী
-

পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বাংলাদেশে ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার শূন্যের কোটায় আনা সম্ভব হবে। কারণ ২০০৫ সালে দারিদ্র্যের হার ছিল ৪০ শতাংশ এবং ২০১০-এ দারিদ্র্যের হার ৩১.৫ হতে ২০১৮ সালে হ্রাস পেয়ে দাঁড়িয়েছে ২১ দশমিক ৮ শতাংশে এবং অতি দারিদ্র্যের হার নেমে এসেছে ১১.৩ শতাংশ। মাত্র কয়েক দশক আগেও বাংলাদেশে অনাহারী অর্ধাহারী মানুষের যে ছবি ভেসে উঠত এখন আর সেই দৃশ্য চোখে পড়ে না।
সংসদ গতকাল প্রশ্নোত্তরে মোহাম্মদ শহিদ ইসলামের উত্থাপিত এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত বিশ্বের কাতারে পৌঁছাতে দারিদ্র্যের হার শূন্যের কোটায় আনা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, এ লক্ষ্য পূরণে সরকারের পরিকল্পনাগুলো দেশ হতে শতভাগ দারিদ্র্য দূরীকরণ, সবার জন্য খাদ্য নিশ্চিতকরণসহ নিম্ন আয়ের জনগণের ভাগ্যের উন্নয়নের জন্য নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ত্বরান্বিত হারে দারিদ্র্য বিমোচন। রাষ্ট্র ও সমাজের আর্থ সামজিক অগ্রগতির কারণে একটি গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশক দারিদ্র্য বিমোচনে অগ্রগতি। উন্নত বিশ্বের কাতারে পৌঁছতে অর্থনৈতিক ও সামাজিক খাতে বিভিন্ন বিষয়কে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। জিডিপি ও মাথাপিছু আয় বৃদ্ধির মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখতে পারে এমন অনেক নতুন খাত যুক্ত করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum