১৫ অক্টোবর ২০১৯

জিয়া চ্যারিটেবল মামলার রায়ের নথি হাইকোর্টে

-

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের নথি হাইকোর্টে পাঠানো হয়েছে। গতকাল ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. আখতারুজ্জামানের আদালত থেকে এ নথি পাঠানো হয়। এই আদালতের বেঞ্চ সহকারী মোকাররম হোসেন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
গত ৩০ এপ্রিল ওই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনের আবেদনটি নথিভুক্ত করে দুই মাসের মধ্যে মামলার নথি তলব করা হয়। বিচারিক আদালতের দেয়া সাজা বাতিল ও খালাস চেয়ে বিএনপির চেয়ারপারসনের আপিল আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করেন হাইকোর্ট। একই সাথে অর্থদণ্ড স্থগিত এবং সম্পত্তি জব্দের আদেশের ওপর স্থিতাবস্থা দিয়েছেন আদালত। তবে মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি গ্রহণ করেননি হাইকোর্ট। নথি পাওয়ার পর জামিন আবেদনের ওপর শুনানি গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন আদালত। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
ওই দিন শুনানিতে আদালত বলেছিলেন, সাত বছরের সাজার মামলায় আমরা জামিন দেই না, তা না। মামলার নথি আসুক, তখন জামিনের আবেদনটি দেখা হবে। এ মামলায় রেকর্ড না দেখে বেইল (জামিন) দিচ্ছি না।
এর আগে, ২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. আখতারুজ্জামান এ মামলায় খালেদা জিয়াকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেন। একই সাথে তাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা এবং ওই ট্রাস্টের নামে কেনা কাকরাইলের ৪২ কাঠা জামি রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দেন।
এ মামলার অপর আসামি সাবেক প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, তার একান্ত সচিব জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খানকেও একই কারাদণ্ড দেন আদালত।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum