২৪ মে ২০১৯
আইডিয়াল স্কুলের অধ্যক্ষের চাকরিচ্যুতির দাবি অভিভাবক ফোরামের

উত্তরপত্র ঘষামাজা-নম্বর বাড়িয়ে ভর্তির অভিযোগ প্রমাণিত

-

মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অনিয়ম প্রমাণিত হওয়ায় তাকে চাকরিচ্যুত করার দাবি জানিয়েছে অভিভাবক ফোরাম। প্রতিষ্ঠানটির তিন শাখায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণীর ভর্তি পরীক্ষার উত্তরপত্র ঘষামাজা করে নম্বর বাড়িয়ে দিয়ে ভর্তি করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ফোরামের সভাপতি জিয়াউল কবীর দুলু ও সাধারণ সম্পাদক মো: সেলিমউদ্দিন এ দাবি জানান।
গতকাল এক যুক্ত বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১৮ শিক্ষাবর্ষে মতিঝিল, বনশ্রী ও মুগদা শাখায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণীর ভর্তি পরীক্ষার উত্তরপত্র ঘষামাজা করে নম্বর বাড়িয়ে দিয়ে ভর্তি করার অভিযোগ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বেগম দায়িত্ব পালনের নৈতিকতা হারিয়েছেন।
তিনি কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীদের সাথে প্রতারণা ও বিশ্বাস ভঙ্গ করেছেন। এটা জঘন্য অপরাধ। এ জন্য প্রতারণা ও বিশ্বাস ভঙ্গের অভিযোগে অধ্যক্ষ শাহান আরার বিরুদ্ধে ফৌজধারি কার্যবিধির ৪২০ ও ৪০৬ ধারায় সরকার কর্তৃক মামলা দায়ের করে গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় আনা উচিত।
অভিভাবক ফেরামের নেতৃদ্বয় বলেন, শুধু শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক এমপিও এবং বেতনভাতা স্থগিত করলে চলবে না। ইতোমধ্যে বিভিন্ন অভিযোগে এই অধ্যক্ষের একাধিকবার বেতন-ভাতা স্থগিত করা হয়েছিল এবং পরে অবৈধ লেনদেনে তা পুনরায় চালু করা হয়েছে। তারা আরো বলেন, শুধু ২০১৮ শিক্ষাবর্ষেই নয়, ২০১৭ শিক্ষাবর্ষেও দুই শতাধিক শিক্ষার্থীকে অনুরূপভাবে ভর্তি করানো হয়েছে এবং ২০১৯ শিক্ষাবর্ষে টাকার বিনিময়ে অধ্যক্ষ শাহানা আরা দেড়শত শিক্ষার্থীকে অবৈধভাবে ভর্তি করিয়েছেন। যা তদন্ত করলেই বেরিয়ে আসবে।
নেতৃদ্বয় বলেন, বিচারহীনতার কারণে বার বার অনিয়ম ও দুর্নীতি করে অধ্যক্ষ শাহার আরা পার পেয়ে যাচ্ছেন। তার নেতৃত্বাধীন ভর্তি ও নিয়োগ বাণিজ্যের সিন্ডিকেটেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়ার সময় এসেছে।


আরো সংবাদ

Instagram Web Viewer
agario agario - agario