১৮ জুন ২০১৯

আল্লাহর বিধান অমান্য করার কারণেই খুন ধর্ষণ বেড়েছে : শীর্ষ উলামায়ে কেরাম

-

দেশের শীর্ষ উলামায়ে কেরাম গতকাল এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেছেন, সারা দেশে খুন, গুম, ধর্ষণ, শ্লীলতাহানিসহ নানামুখী অনৈতিক কর্মকাণ্ডের মহোৎসব চলছে। আল্লাহর বিধান অমান্য করার কারণেই সামাজিক বিশৃঙ্খলা, অনৈতিকতা, খুন, ধর্ষণ মহামারী আকার ধারণ করছে। আল্লাহ তায়ালা স্পষ্টভাবে সতর্ক করে বলেন, ‘জল-স্থল- অন্তরীক্ষে সর্বত্র ফেতনা, ফ্যাসাদ, বিশৃঙ্খলা মানুষের হাতেরই কামাই। আল্লাহ তাদেরকে কৃতকর্মের শাস্তি আস্বাদন করাতে চান।’ (সূরা রুম : ৪১)। আজ ছেলেমেয়েদের অবাধ মেলামেশার সুযোগ করে দেয়া হচ্ছে। অভিভাবকদের পক্ষ থেকে উঠতি বয়সের সন্তানদের মনিটরিং না করা এবং তাদের জন্য নৈতিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা না রাখার দরুন আজ তারা অশ্লীলতা ও বেলেল্লাপনায় গা ভাসিয়ে দিচ্ছে। সঠিক দ্বীন চর্চার পরিবেশ ও নৈতিকতা শিক্ষাদানের পরিবর্তে সন্তানদের অপসংস্কৃতি, কুশিক্ষা ও বিজাতীয় সভ্যতা সংস্কৃতির রাস্তায় ছেড়ে দেয়ার কারণে ব্যক্তি, সমাজ ও সামাজিক পরিবেশ দিন দিন বিষাক্ত হয়ে যাচ্ছে। অথচ অভিভাবকদের ফরজ দায়িত্বই হলো অধীনস্থদের দ্বীনি পরিবেশে প্রতিপালন করা। আজ এই নৈতিক পরিবেশ তৈরির সুযোগ না থাকার কারণেই আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সোনার সন্তানেরা নীতি-নৈতিকতা হারিয়ে সর্বস্বান্ত ও দেউলিয়া হয়ে পড়ছে। আবার জীবননাশের ঘটনাও ঘটেই চলেছে। তাই আসুন ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, সংসার ও দেশে সর্বত্রই দ্বীনি ও নৈতিক শিক্ষার কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করি।
বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সভাপতি শাইখ আবদুল মোমিন, ইসলামী ঐক্যজোটের আমির মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, খেলাফত আন্দোলনের প্রধান আমিরে শরিয়ত হাফেজ মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জি হজুর, অধ্যক্ষ মাওলানা যাইনুল আবেদীন, মাওলানা জাফরুল্লাহ খান, মাওলানা মহিউদ্দীন রব্বানী, ড. মাওলানা খলিলুর রহমান মাদানী, শাহতলীর পীর মাওলানা আবুল বাসার, ফরায়েজি আন্দোলনের আমির মাওলানা আব্দুল্লাহ মো: হাসান, ইসলামী কানুন বাস্তবায়ন পরিষদের আমির মাওলানা আবু তাহের জিহাদী, মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, হক্কানি পীর মাশায়েখ পরিষদের মহাসচিব মাওলানা শাহ আরিফ বিল্লাহ সিদ্দিকী, মীরেরসরাইর পীর মাওলানা আবদুল মোমেন নাছেরী প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ