১৩ ডিসেম্বর ২০১৮

টেলিভিশন উৎপাদনে আরো ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে ওয়ালটন

-

উচ্চমানের পণ্য ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিয়ে গ্রাহকদের মন জয় করতে চায় ওয়ালটন। বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে ‘মেইড ইন
বাংলাদেশ’ পণ্য পৌঁছে দিতে তারা আগ্রহী। দিনব্যাপী ওয়ালটন প্লাজা ম্যানেজার কনফারেন্সে এই তথ্য জানানো হয়। কনফারেন্সে বলা
হয়, বিশ্বের সেরা মানের পণ্য তৈরিতে নিজস্ব কারখানায় টেলিভিশন উৎপাদনে নতুন আরো ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করছে
ওয়ালটন।
গতকাল ওয়ালটন করপোরেট অফিসে ‘মিট দ্য প্লাজা ম্যানেজারস অ্যান্ড একচেঞ্জ ভিউ ২০১৮’ শীর্ষক দিনব্যাপী এই কনফারেন্স
অনুষ্ঠিত হয়। এতে সারা দেশের বিভিন্ন জোন থেকে আসা ওয়ালটনের নিজস্ব বিক্রয়কেন্দ্রের তিন শতাধিক ম্যানেজার বা ব্যবস্থাপক অংশ
নেন।
প্রধান অতিথি হিসেবে বেলুন উড়িয়ে কনফারেন্সের উদ্বোধন করেন ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম। বিশেষ অতিথি
ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল আলম রেজভী, ভাইস-চেয়ারম্যান এস এম শামসুল আলম,
ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম, ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক জাকিয়া সুলতানা, তাহমিনা
আফরোজ তান্না এবং রাইসা সিগমা হিমা।
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন : ওয়ালটন বিপণন বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রিজওয়ানা, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এমদাদুল
হক সরকার, নজরুল ইসলাম সরকার, এস এম জাহিদ হাসান, হুমায়ুন কবির, মোহাম্মদ রায়হান, আশরাফুল আম্বিয়া, কর্নেল (অব:)
এস এম শাহাদাত আলম, উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব:) এ কে এম মুজাহিদ উদ্দীন, ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম,
সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর গোলাম মুর্শেদ, অপারেটিভ ডিরেক্টর ফিরোজ আলম প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন চিত্রনায়ক আমিন
খান।
ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল আলম রেজভী বলেন, ওয়ালটন শুধু বাংলাদেশেরই নয়, বরং সারা
বিশ্বের। এটি এখন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড। সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে উন্নতমানের কাঁচামাল ব্যবহার করে বিশ্বমানের পণ্য উৎপাদন করছে
ওয়ালটন। ফ্রিজের বাজারে ওয়ালটন অপ্রতিদ্বন্দ্বী। টেলিভিশন উৎপাদন খাতে আরো ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করা হচ্ছে। উদ্দেশ্য,
বিশ্বের শীর্ষ মানের পণ্য তৈরি।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এস এম মাহবুবুল আলম বলেন, সব ক্রেতাই সমান গুরুত্বপূর্ণ। উন্নতমানের পণ্য ও সেবা দিয়ে ক্রেতাদের সন্তুষ্টি
অর্জনই প্রধান লক্ষ্য। এ জন্য প্লাজা ম্যানেজারদের আরো আন্তরিক হতে হবে। তিনি প্লাজা ম্যানেজারদের আধুনিক বিপণন কলাকৌশলের
বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দিকনির্দেশনা দেন।


আরো সংবাদ