২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মার্কেট করতে গিয়ে মাদক কারবারির সাথে পরিচয় অতঃপর...

-

বছর দুয়েক আগে ঢাকা নিউ মার্কেটে কেনাকাটা করতে যায় গৃহবধূ সাদিয়া ইসলাম মায়া। সেখানে দুই মহিলা মাদক কারবারির সাথে পরিচয় হয় তার। ফোন নম্বরও আদান-প্রদান করা হয়। মাঝে মধ্যে ফোনে দুই মাদক কারবারির সাথে কথা হতো মায়ার। মাদক ব্যবসায় নগদ টাকা, অল্প সময়ে বিত্তবান হওয়ার গল্প দুই মাদক কারবারির কাছ থেকে প্রায়ই শুনতো মায়া। তারা মায়াকে মাদক কারবারিতে যোগ দেয়ার প্রস্তাব দেয় এবং মাদকের চালান পেতে সহযোগিতার আশ্বাসও দেয়। একপর্যায়ে লোভে পড়ে মাদক কারবারির খাতায় নাম লেখায় মায়া। মাদক কারবার করতে গিয়ে মাঝে মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরাও পড়তে হয়েছে তাকে। সর্বশেষ গতকাল সহযোগীসহ ফের ধরা পড়েছে ভাটারা এলাকার শীর্ষ এই মাদক সম্রাজ্ঞী সাদিয়া ইসলাম মায়া।
র‌্যাব-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আশিকুর রহমান বলেন, বুধবার সকালে ভাটারা এলাকার ১৩ নম্বর রোডের সি-ব্লকের একটি বাসা থেকে মায়া ও তার সহযোগী মুহাম্মদ কাইয়ুম খানকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব গোপন সূত্রে জানতে পারে, মায়ার ভাটারার বাসায় ইয়াবার বড় একটি চালান এসেছে। সেই সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। মায়া দীর্ঘ দিন ধরে চট্টগ্রাম থেকে ইয়াবা এনে কারবার করত। ভাটারা থানায় তার নামে মামলা রয়েছে। এর আগে জেলও খেটেছে সে। জেল থেকে বের হয়ে ফের একই পেশায় যুক্ত হতো মায়া।
র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, বেশ কয়েক বছর আগে কাইয়ুম ও মায়ার পরিবার একই ভবনে ভাড়া থাকত। সেই সুবাদে তাদের পরিচয়। তবে মাঝে কাইয়ুম লন্ডনে চলে যায়। বছর দুয়েক আগে দেশে আসে। দেশে ফেরার পর মায়া কাইয়ুমকে মাদক কারবারে যুক্ত করে। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা করে পুলিশে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।


আরো সংবাদ