মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮
বেটা ভার্সন

জিপিএ ৫ ক্রেতা : অভিযুক্ত ৫ কলেজকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

-

জিপিএ ৫ কেনার অভিযোগে রাজধানীর পাঁচ কলেজকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ। গত পরশু এ শোকজ নোটিশ পৃথকভাবে প্রতিটি কলেজ অধ্যক্ষের বরাবরে ইস্যু ও পৌঁছানো হয়েছে বলে বোর্ড সূত্রে জানা গেছে। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক হারুণ-অর-রশিদ শোকজ নোটিশ ইস্যু ও পৌঁছানোর বিষয়টি নিশ্চিত করে গতকাল নয়া দিগন্তকে বলেছেন, তিন কর্মদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। জবাব প্রাপ্তির পরই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ছাড়া তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। ওই রিপোর্টসহ সার্বিক বিষয় নিয়েই অভিযোগ প্রমাণিত হলে, কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।
নোটিশে বলা হয়েছে, গত ৯ জুন একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচারিত প্রতিবেদন দেখা যায়, আপনার প্রতিষ্ঠান পাবলিক পরীক্ষার ফল পরিবর্তনের প্রতারণায় অংশ নিয়েছেন। পরীক্ষার ফল পরিবর্তনের কোনো সুযোগ না থাকার বিষয়টি জেনেও সরকার ও শিক্ষা বোর্ডের ইমেজ বিনষ্টের কর্মকাণ্ডে অংশ নিয়েছেন। এ ব্যাপারে কেন আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে না এবং পাঠদানের অনুমতি বাতিল করা হবে না, তার ব্যাখ্যা আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে বোর্ড কর্তৃপক্ষের কাছে জানাতে বলা হয়েছে।
পৃথক পাঁচটি নোটিশেই স্বাক্ষর করেছেন ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক হারুণ-অর-রশিদ। অভিযুক্ত কলেজগুলোর সব কয়টিই রাজধানীতে অবস্থিত। কলেজগুলো হচ্ছে, ন্যাশনাল পাবলিক কলেজ, ঢাকা মেগাসিটি কলেজ, উত্তরা ইউনাইটেড কলেজ এবং দ্য ব্রিলিয়ান্ট কলেজ।
উল্লেখ্য, একটি বেসরকারি টেলিভিশনে গত ৯ জুন রাত সাড়ে ১০টায় প্রচারিত ‘বিক্রি হচ্ছে জিপিএ ফাইভ’ শীর্ষক প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং ঢাকা শিক্ষা বোর্ড পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। মন্ত্রণালয়ের কমিটিকে সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এরই মধ্যে কলেজ পরিদর্শকও পৃথক কারণ দর্শানোর নোটিশ দিলো গত পরশু।


আরো সংবাদ