২৪ মার্চ ২০১৯

যে ৭টি উপায়ে বদলে ফেলবেন জীবন

আপনি কী করছেন সেটি পরিষ্কার থাকলে এমন সুখী ভাব চলে আসবে - সংগৃহীত

কী করবো, কী করবো না অথবা কোন পথ ধরে এগিয়ে চলব- এমন অনেক কিছু ভাবতে ভাবতেই হয়তো এমন কিছু চলে আসে যা জীবনটাকেই পরিবর্তন করে দিতে পারে। তবে জীবনের সন্তুষ্টির জন্য আগে অবশ্যই দেখতে হবে নিজের আইডিয়া ও কাজের পরিকল্পনা।

যখন আপনি নিজের কোনো দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা করবেন তখন কিছু বিষয়ের দিকে নজর রাখবে। কী সেগুলো? দেখুন নিচে-

১. প্রথমে ভালোভাবে চিন্তা করুন

নিজের করণীয় সম্পর্কে তালিকা করার আগে আপনাকে ভাবতে হবে কী করা উচিত আর কী করা উচিত না।

সব লিখে তারপর দেখুন কোনটিকে বেশি অগ্রাধিকার দেয়া দরকার। চিন্তাগুলোকে একটি কাঠামোতে সাজিয়ে ফেলুন। দেখুন কোন সময়ে কোনটি করলে ভালো ফল আসবে। এভাবে ভেবে চিন্তে এগুতে থাকুন এবং তালিকাটি করেই ফেলুন।

এতে করে আপনি যাই করবেন তাতে একটি মানসিক সন্তুষ্টি থাকবে আপনার। চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বলেন আমরা একই সময়ে আমাদের মাথায় চারটি বিষয়কে রাখতে পারি।

২. নিজেকে আরো সফল করে তুলুন

তালিকাটি আক্ষরিক অর্থেই আপনাকে সফল করে তুলতে পারে এবং এটিই হতে পারে বেশি কার্যকর।

মনোবিজ্ঞানী জর্ডান পিটারসন দেখিয়েছেন যে শিক্ষার্থীরা একটি প্রক্রিয়া অনুসরণ করলে তাদের পারফরমেন্স ভালো হয়।

তাই একটি কলম নিন, সাথে এক টুকরো কাগজ।

নিজের লক্ষ্যগুলো লিখতে শুরু করে দিন।

৩. অর্থ সঞ্চয় করুন

নিজের অর্থ সঞ্চয়ের বিষয়ে ভাবতে হবে। অর্থাৎ কোথায় গেলে আপনার জন্য সাশ্রয় হবে সেটিও জানা থাকা উচিত। তাই ধরুন শপিংয়ে যাবেন, তাহলে লিখে ফেলুন কী কী কিনবেন। তারপর দেখুন কোথায় সেটা আপনার জন্য সাশ্রয়ী হবে।

এটি আপনাকে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় থেকে রক্ষা করবে।

৪. আত্ম-সন্দেহ থেকে মুক্ত থাকুন ও আত্মবিশ্বাসকে আরো জাগ্রত করুন

ধরুন হঠাৎ যদি মনে হয় যে জীবন আপনি পার করছেন তা যথেষ্ট ভালো নয়, তাহলো একটি সঠিক তালিকাই আপনাকে সে পরিস্থিতি থেকে বের করে নিয়ে আসতে পারে।

আপনি আপনার ছোট বড় সব অর্জনগুলো তালিকায় তুলে ফেলুন।

দেখবেন সত্যিই কী দারুণ সময় গেছে আপনার।

মানুষ এ আত্মবিশ্বাস নিয়েই সমস্যায় ভোগে। তাই এ তালিকাটি করুন সেটি যে ধরণের সাফল্যই হোকনা কেন। এরপর দেখুন নিজের যোগ্যতা সম্পর্কে আত্মবিশ্বাস আরো কীভাবে বাড়ে।

৫. নিশ্চিত করুন যে কোনো ভুল করছেন না

এটি আপনাকে কোনো বিপর্যয় থেকে রক্ষা করবে। এ ধরণের একটি চেক লিস্ট তাই জরুরি।

বিয়ের পরিকল্পনা, বা ছুটিতে যাওয়ার পরিকল্পনা। এ সময় লিখে ফেলুন কী কী দরকার। দেখবেন দারুণ পরিকল্পনা হয়ে যাচ্ছে।

৬. সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনায় স্থির থাকতে নিজেকে সহায়তা করুন

আমাদের মস্তিষ্ক অনেক সময় মনে করিয়ে দেয় যে, কোন কাজগুলো শুরু করেও আমরা শেষ করিনি।

আর এ কারণে যখন আপনি মনোযোগ দিয়ে কোনো কাজ করছেন তখন দেখবেন আরেকটি বিষয় মনে এসে আপনার কাজের ব্যাঘাত ঘটিয়ে দিচ্ছে।

এজন্য মনোবিজ্ঞানীরা বলেন, কোনটা করবেন তা লিখে ফেলুন এবং সে অনুযায়ী কাজ করুন।

৭. যে জিনিসগুলো আপনাকে দমিয়ে রেখেছে সেগুলোর মুখোমুখি হোন

যেসব বিষয় আপনাকে এগুতে দিচ্ছে না বা দমিয়ে রাখছে সেগুলোর মুখোমুখি হোন। হয়তো মনে হবে বিষয়টি সুখকর নাও হতে পারে। তারপরেও মোকাবেলা করুন। দেখবেন শেষ পর্যন্ত সন্তুষ্টিই আসবে।


আরো সংবাদ

iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al