২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

থাইল্যান্ডে কিশোর বক্সারের মৃত্যু, ব্যাপক ক্ষোভ

মুয়াই থাই মার্শাল আর্ট খেলছে দুই কিশোর - সংগৃহীত

থাইল্যান্ডে একটি চ্যারিটি বক্সিং ম্যাচ খেলার সময় ১৩ বছর বয়সী এক কিশোর বক্সার মারা গেছে। এতে দেশটিতে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে এবং শিশুদের জন্য মুয়াই থাই মার্শাল আর্ট খেলা নিষিদ্ধ করার জোর দাবি উঠেছে।

দেশটিতে থাই বক্সিং ব্যাপক জনপ্রিয়। জনপ্রিয়তা ও ভাগ্য অন্বেষণে অনেক মুষ্টিযোদ্ধা অল্প বয়সেই বক্সিং ম্যাচ খেলা শুরু করে। তবে শিশুদের হেডগার্ড ছাড়াই ম্যাচে অংশ নেয়ার বিষয়টি বরাবরই ব্যাপক সমালোচিত হয়ে আসছে। ১০ বছরের কম বয়সী শিশুরা এমন একটি বিপজ্জনক খেলায় মেতে উঠে যেখানে মাথা লক্ষ্য করে লাথি ও কুনুই দিয়ে গুতা দেয়া হয়।

প্রায়ই দরিদ্র পরিবারের এই সব কিশোর মুষ্টিযোদ্ধারা এই খেলার মাধ্যমে পরিবারের জীবিকা উপার্জন করে। এই খেলাটিকে কেন্দ্র করে মোটা অঙ্কের জুয়া খেলা হয়।

নিহত কিশোরের নাম আনুচা তাসাকো। ১০ নভেম্বর রাজধানী ব্যাংককের কাছে সামুত প্রাকাম প্রদেশে এই ঘটনা ঘটে। খেলায় কিশোরটির মাথায় বেশ কয়েকটি গুরুতর আঘাত লাগে।

ছেলেটি ফেটমোংকোল সোর উইলাইথোং উপনামে লড়াই করত। বক্সিং রিংয়ে আঘাত পেলে মাটিতে লুটিয়ে পড়ার পর তাকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পুলিশ জানায়, পরে হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সময় মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণে সে মারা যায়।

গণমাধ্যম জানায়, আট বছর বয়স থেকে ছেলেটি বক্সিং করে যাচ্ছে। সে ১৫০টি বক্সিং ম্যাচে লড়েছে।

তার প্রতিপক্ষ নিতিক্রোন সোন্দে তার সমবয়সী বলে পুলিশ জানায়।

ফেসবুকে অনুচার মৃত্যুতে সে দুঃখ প্রকাশ করেছে।

মঙ্গলবার সে লিখেছে, ‘তার মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে দুঃখিত। ম্যাচে জিততে চেষ্টা করা আমার দায়িত্ব। আমি আমার দায়িত্ব পালন করছিলাম। জিততে পারলে আমি আমার লেখাপড়ার খরচ চালানোর মতো অর্থ উপার্জন করতে পারব।’


আরো সংবাদ

সকল




gebze evden eve nakliyat Paykasa buy Instagram likes Paykwik Hesaplı Krediler Hızlı Krediler paykwik bozdurma tubidy