২৩ জুন ২০১৮

সিঙ্গাপুরকে মালয়েশিয়ার অংশ বলে তোপের মুখে যুক্তরাষ্ট্র!

সিঙ্গাপুরকে মালয়েশিয়ার অংশ বলে তোপের মুখে যুক্তরাষ্ট্র! - সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের বৈঠককে কেন্দ্র করে একটি ‘বিব্রতকর’ ঘটনার জন্ম দিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাদের কর্মকর্তারা সিঙ্গাপুরকে মালয়েশিয়ার ‘অধিভুক্ত করে’ বিবৃতি প্রকাশ করেছেন।  মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ব্রিফিংয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর দেয়া বিবৃতিতে হোটেলের ভেন্যু লেখা হয়েছিল ‘জেডব্লিউ মেরিওট, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া’। পরবর্তীতে ওয়েবসেইটে সংশোধিত ব্রিফিং দেখা গেছে।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের ভৌগলিক ও কূটনৈতিক জ্ঞান নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।   মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অনেকটাই তোপের মুখে পড়েছে।  

দীর্ঘকাল ব্রিটিশদের দ্বারা শাসিত হওয়ার পর সিঙ্গাপুর ১৯৬৩ সালে মালয়েশিয়ার সাথে যুক্ত হয়েছিল।  ১৯৬৪ সালে জাতিগত দাঙ্গা বেঁধে যায় মালয়দের সাথে সিঙ্গাপুরের চাইনিজদের। পরে ১৯৬৫ সালে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী টুঙ্কু আব্দুল রহমানের প্রস্তাবে সিঙ্গাপুরকে মালয়েশিয়ান ফেডারেল ইউনিয়ন থেকে বের করে দেয়া হয়।

 ১৯৬৫ সালের ৯ আগস্ট সিঙ্গাপুরের নেতা লি কুয়ান ইউ অশ্রুসিক্ত নয়নে বিশ্ব মিডিয়ায় সিঙ্গাপুরের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন।  স্বাধীন হয়ে অতি ক্ষুদ্র জায়গায় বিশাল সংখ্যক বেকার জনগোষ্ঠীর আবাসন এবং কর্মসংস্থানের যোগান দিতে পুরো হিমশিম খেয়েছিল সিঙ্গাপুর। পরে সমুদ্র যোগাযোগ ব্যবস্থাকে পুঁজি করে ব্যবসায় খাতকে পুরো উন্মুক্ত করে দেয় বিশ্বের কাছে। 

সিঙ্গাপুরকে মালয়েশিয়ার অধিভূক্ত করাটা ভালোভাবে নিচ্ছেন না সিঙ্গাপুরিয়ানরা।  টুইটারে চুন হ্যান অং নামে ব্যঙ্গ করে একজন লিখেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র সিঙ্গাপুরকে আবার মালয়েশিয়া দ্বীপপুঞ্জের অধিভূক্ত করার পাঁয়তারা করছে।’ উইলিয়াম চং নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘সিঙ্গাপুরিয়ানদের মালয়েশিয়ান বলার চেয়ে বড় দুর্ভাগ্য আর কী হতে পারে!’


আরো সংবাদ