২৩ জুলাই ২০১৯

ঘোলাটে হচ্ছে জাবি’র রাজনীতি, চাপে ভিসি

সিনেট,সিন্ডিকেটে পরাজয়,টেন্ডার ও শৃঙ্খলাবিধি নিয়ে উত্তেজনা
ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম - সংগৃহীত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারও ঘোলাটে হচ্ছে শিক্ষক রাজনীতি। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মধ্যে বিভক্তি আবার আওয়ামীলীগের বড় একটি অংশের সাথে বিএনপি ও বামজোটের সমন্বয়ে এন্টি-ভিসি রাজনীতি আগের চেয়ে সক্রিয় হয়ে উঠেছে। ক্যাম্পাসের সার্বিক উন্নয়নের জন্য সাড়ে ১৪শ কোটি টাকা বাজেট এনে ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম প্রথমে বাহবাহ পেলেও বর্তমানে এই প্রকল্পে কাজ পাইয়ে দেয়া ও টেন্ডার নিয়ে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনসহ বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের আবদার ও চাপে রয়েছেন ভিসি। প্রকল্পের টেন্ডার আগ্রহী একটি কোম্পানীর দরপত্র সিডিউল ছিনতাইয়ের অভিযোগ ও পাবলিক প্রকিউরমেন্টের নিয়ম লঙ্ঘন করার অভিযোগে সমালোচিত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এদিকে বিশ্ববিদ্যারলয়ের ছাত্র সংশ্লিষ্ট শৃঙ্খলাবিধিতে নতুন হয়রানিমূলক আইন সংযোজন করা নিয়ে ক্যাম্পাসের সাংবাদিক সংগঠন,সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।ইতিমধ্যে জাবি সাংবাদিক সমিতি,প্রেসক্লাব,ছাত্রইউনিয়ন, ছাত্রফ্রন্ট, জাসদ ছাত্রলীগসহ সচেতন শিক্ষার্থীরা এ হয়রানিমূলক আইন বাতিলের দাবি জানান। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারিও দেয় তারা।

সাম্প্রতিক সময়ে ভিসি বিরোধী সম্মিলিত জোটের মধ্যে ফাটল ধরলে ভিসি ও প্রশাসনে কিছুটা স্বস্তি আসে। কিন্তু বিরোধীরা আবার দ্রুততম সময়ের মধ্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধ করে ব্যাপক পরিসরে ঘুরে দাড়িয়েছে। অধ্যাপক আব্দুল জব্বার হাওলাদারকে সভাপতি,অধ্যাপক শামছুল আলম সেলিম ও অধ্যাপক সাইদ ফেরদৌসকে যুগ্ন আহ্বায়ক এবং অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনুকে সদস্য সচিব করে পুরোদামে সক্রিয় হয়েছে সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ। যার ফলাফল ও প্রভাব পরিলক্ষিত হয় গত ১৭জুনে অনুষ্ঠিত সিনেট নির্বাচনে।

জানা যায়, সোমবার অনুষ্ঠিত সিনেটে নির্বাচনে আবারও ভারডুবি হয়েছে ভিসিজোটের। অধ্যক্ষ ক্যাটাগরির সিনেট সদস্য নির্বাচনে ভিসিজোট মাত্র ১টিতে বিজয়ী অন্যদিকে বিরোধী জোট ৪টি পদে জয় লাভ করে। এছাড়াও সিন্ডিকেট সদস্যদের মধ্যে ভিসিজোট ১টি, বিরোধী জোট ১টিতে জয় লাভ করে। নির্বাচনে এ ভরাডুবির পেছনে ভিসিপন্থী শিক্ষকদের একটি অংশ অন্য একটি অংশকে দায়ী করছে তাদের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে।

একাডেমিক কাউন্সিল থেকে জয়যুক্ত সিন্ডিকেট সদস্যরা হলেন, সিদ্ধেশ্বরী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ শেখ জুলহাস উদ্দীন(ভিসিপন্থি)।অপরজন ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ নেহাল আহমেদ (এন্টি-ভিসি)। নবনির্বাচিত ৫জন সিনেট সদস্যরা হলেন-মানিকগঞ্জের আবদুর রউফ কলেজের অধ্যক্ষ দেওয়ান আনিসুর রহমান (একমাত্র ভিসিপন্থী)।এন্টি-ভিসিজোট থেকে বিজয়ীরা হলেন-নেত্রকোণার তেলিগাতি সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ মো. ইসমাইল হোসেন,টঙ্গী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ মো. রফিকুল ইসলাম,নারায়ণগঞ্জ সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ বেদুরা বিনতে হাবিব,কিশোরগঞ্জের আরএস আইডিয়াল কলেজ কিশোরগঞ্জ অধ্যক্ষ গুলশান আরা বেগম।

সাম্প্রতিক সময়ে সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ থেকে বের হয়ে আওয়ামীপন্থী কিছু শিক্ষক ভিসির সাথে একজোট হওয়ার পরও ভিসিপন্থীদের ভরাডুবিতে ক্যাম্পাসে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।ভিসির কয়েকজন ঘনিষ্ট শিক্ষক বলছেন,আওয়ামীপন্থী শিক্ষকদের একটি গ্রুপ ভিসিকে সমর্থন দিলেও ভোট দেয়নি।ফলে এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবারও আস্থা ও বিশ্বাসের সংকট দেখা দিয়েছে। কেউ কেউ বলছে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইটি ইমামের চাপে আওয়ামীপন্থিরা সাময়িক ঐক্যবদ্ধ হলেও আসলে মন থেকে এক হতে পারেনি। পরাজয়ের বিষয়ে বঙ্গবন্ধু আদর্শের শিক্ষক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক মান্নান চেীধুরী বলেন,‘আমাদের অনেক অধ্যাপকরা দুপুরের পরে ভোট দিতে আসেনি।আসলে আমরা সিরিয়াস ছিলাম না আর ওভার কনফিডেন্সের কারণে আমরা হেরেছি।’এটাকে আমরা কোন চাপও মনে করছিনা।’

এদিকে শিক্ষক সমিতিতে বিজয়ের পর অধ্যক্ষ কোটায় সিন্ডিকেট ও সিনেট নির্বাচনে বিজয়ে আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছে সম্মিলিত শিক্ষক সমাজ।তারা ইতিমধ্যে সংবাদ সম্মেলন করে বিলম্বিত সিনেট,সিন্ডিকেটর পাশাপাশি ডিন নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে।পাশাপাশি জাকসুর পরিবেশ তৈরী করারও আহ্বান করেছে।

এ বিষয়ে সম্মিলিত শিক্ষক সমাজের সদস্য সচিব অধ্যাপক জামালউদ্দিন রুনু বলেন,‘শিক্ষক সমিতির নির্বাচনের জয়ের ধারাবাহিকায় সিনেট ও সিন্ডিকেটে সম্মিলিত শিক্ষক সমাজের বিজয় আবারও প্রমাণ করলো যে আমরা ক্যাম্পাসের স্বার্থে যে যৌক্তিক বিরোধীতা করছি তা সকলের কাছে গ্রহনযোগ্য পেয়েছে।আমাদের এ বিজয় প্রশাসনের অগণতান্ত্রিক চর্চার বিরুদ্ধে বড় একটি মেসেজ।আশা করি ভিসি এবিষয়গুলোকে মাথায় রেখে গণতান্ত্রিক পরিবেশ তৈরী করবে।’

সবকিছু বিবেচনায় সংশ্লিষ্টরা বলছে,‘মেগা প্রজেক্টের বাজেটের সঠিক ব্যবহার,বিভিক্ত শিক্ষক রাজনীতি,বিতর্কিত ছাত্রশৃঙ্খলাবিধি ও বিলম্বিত নির্বাচন দেয়াকে কেন্দ্র করে আরো চাপে থাকবেন জাবি ভিসি।


আরো সংবাদ

শিক্ষিকাকে ধর্ষণ : ৩ কোটি টাকায় মুক্তি পাচ্ছেন রোনালদো! প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে এবার ড. বারাকাতের কঠিন অভিযোগ তারকা মডেল-অভিনেত্রীর ৬ মাসের জেল ‘গোঁফ চুরি’ নিয়ে হইচই, যুবককে বয়কট নাপিতদের কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করতে ট্রাম্পকে মোদির অনুরোধ! যুক্তরাষ্ট্রকে তুরস্কের হুমকি : নিষেধাজ্ঞা দিলে প্রতিশোধ ছেলে ধরা গুজবের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার সরকারি হুঁশিয়ারি জ্বর হলেই ডাক্তারের কাছে যেতে হবে : পরীক্ষা করেই নিশ্চিত হতে হবে বিআইডব্লিউটিসি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের বিক্ষোভ সমাবেশ জিনের ভয় দেখিয়ে মেয়েদের ধর্ষণ : গ্রেফতার এক বন্যাকবলিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে শিক্ষক ফেডারেশনের আহ্বান

সকল




gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi