২১ জুলাই ২০১৯

ছবিতে প্রেসিডেন্ট মুরসির কিছু কার্যক্রম

পূর্ব কায়রোর আল নাসের সিটি জেলার আল-ওয়াফা ওয়াহ আল-আমাল কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে মুরসিকে - এএফপি

২০১১ সালের ২৫ জানুয়ারি স্বৈরশাসক হুসনি মোবারকের পতনের পর ২০১২ সালের জুন মাসে মিসরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো গণতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন মুহাম্মদ মুরসি। তিনি ছিলেন মিসরের পঞ্চম প্রেসিডেন্ট।

২০১৩ সালের ৩ জুলাই এক সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে তাকে ক্ষমতা থেকে সরানো হয়। এরপর থেকেই তাকে কারাগারে বন্দী রাখা হয়েছিল। ১৭জুন সোমবার আদালতে শুনানী চলাকালে হার্ট অ্যাটাকে মুরসির মৃত্যু হয়। একদিন পর মঙ্গলবার ভোরে পূর্ব কায়রোর পূর্ব কায়রোর নাসের সিটিতে মুরসিকে দাফন করা হয়। নিচে মুরসির ক্ষমতা গ্রহণ ও তার পরবর্তী সময়ের কিছু ছবি দেয়া হলো। 

২০১২ সালের ২২ জুন নির্বাচনে জয়লাভের পর মিসরের রাজধানী কায়রোতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন মুহাম্মদ মুরসি
২০১২ সালের ২১ নভেম্বর তৎকালীন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারী ক্লিন্টন কায়রো সফর করার সময় মুরসির সাথে বৈঠক করেছিলৈন
২০১৩ সালের ৩০ জানুয়ারি  জার্মানির বার্লিন সফরকালে চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেলের সাথে করমর্দন করছেন মুরসি
২০১২ সালের ৩০ আগস্ট ইরানের রাজধানী তেহরানে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ আহমেদিনেজাদ ও মুহাম্মদ মুরসি
২০১২ সালের ১ সেপ্টেম্বর কায়রোর প্রেসিডেন্ট ভবনে তৎকালীন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জেনালের আবদেল ফাতাহ আল সি সির সাথে বৈঠ করেন প্রেসিডেন্ট মুরসি
২০১২ সালের ২৬ ডিসেম্বর পার্লামেন্টে পাশ হওয়া নতুন  আইনে স্বাক্ষর করছেন মুরসি। 
২০১৩ সালের ১৮ মার্চ পাকিস্তান সফরের সময় ইসলামাবাদে মুরসি

 

 

 

 

 

 

 


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi