২৫ মে ২০১৯

সৌদিতে হামলার দায় স্বীকার আইএসের

রিয়াদে হামলার পর নিরাপত্তা জোরদার করেছে সৌদি পুলিশ - ছবি : সংগৃহীত

গতকাল রোববার সৌদি আরবের রাজধানীতে একটি নিরাপত্তা অফিসের সামনে হামলা চালিয়েছিল সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা। ভারী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়েছিল তারা। তবে সৌদির নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের প্রতিরোধের মুখে তারা সবাই নিহত হয়। সৌদি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, এ হামলার জন্য দায় স্বীকার করেছে সশস্ত্র সংগঠন আইএস।

উত্তর রিয়াদের জুলফি প্রদেশে রোববার সকালে এ হামলা চালানো হয়েছিল।

সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) জানায়, এ ঘটনায় তিনজন পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছিল। এসপিএ তাদের বিবৃতিতে জানায়, সন্ত্রাসী দলটি এ ভবনে ভয়াবহ ধরনের হামলা চালাতে চেয়েছিল। কিন্তু পুলিশ তাদেরকে ঠেকিয়ে দেয়। এ সময় সন্ত্রাসী বাহিনীর চারজন নিহত হয়। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে।

লন্ডনভিত্তিক পত্রিকা আশরাক আল আওসাত এক প্রতিবেদনে জানায় রাজধানী থেকে ২৬০ কিলোমিটার দূরের শহর জুলফিতে এ হামলা চালানো হয়েছিল। দুইজন বন্দুকধারী গাড়ি থেকে নেমে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। তারা পুলিশের পাল্টা গুলিতে মারা যায়। তৃতীয় একজন পালানোর চেষ্টা করে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়। আর চতুর্থজন তার বিস্ফোরক বেল্ট স্থাপনের চেষ্টা চালানোর জন্য গুলিতে নিহত হয়।

এদিকে আইএসের মুখপত্র আমাক জানিয়েছে, রিয়াদের জুলফি শহরে যে হামলা চালানো হয়েছিল, তা চালিয়েছে ইসলামিক স্টেট গ্রুপের যোদ্ধারা। তবে এ বিষয়ে তারা বিস্তারিত আর কিছুই জানায়নি।

 

আরো পড়ুন : সৌদি আরবেও ভয়াবহ হামলা : চার সশস্ত্র সন্ত্রাসী নিহত
নয়া দিগন্ত অনলাইন, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:১৭

শ্রীলঙ্কার হামলা নিয়ে যখন পুরো বিশ্ব হতবাক হয়ে পড়েছে তখন ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা চলেছে সৌদি আরবে। তবে শ্রীলঙ্কার মতো তা এতটা মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারেনি। সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

অ্যারাব নিউজের খবরে বলা হয়, উত্তর রিয়াদে মেশিন গান, বোমা ও মলোটভ ককটেল নিয়ে হামলার চেষ্টা চালায় কয়েকজন সন্ত্রাসী। পরে নিরাপত্তা বাহিনী তাদের প্রতিহদ করলে তারা ভেতরে ঢুকতে পারেনি।

স্থানীয় পুলিশ জানায়, সন্দেহভাজন হামলাকারীরা একটি গাড়িযোগে রিয়াদ থেকে ২৫০ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত সাধারণ তদন্ত পরিদফতরের প্রধান ফটকে হামলার চেষ্টা করে। কিন্তু নিরাপত্তা বাহিনীর জোর প্রতিরোধের মুখে তারা ভেতরে ঢুকে তাদের হামলা চালাতে সক্ষম হয়নি। বরং উল্টো চার হামলাকারী নিহত হয়েছেন।

সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, নিরাপত্তাবাহিনীর সাথে সংঘর্ষে নিহতদের হাতে মেশিন গান, বোমা ও মলোটভ ককটেল ছিল।

আল আরাবিয়ার খবরে বলা হয়েছে, পরবর্তীতে দুই পক্ষের বন্দুকযুদ্ধে হামলাকারীরা নিহত হয়েছেন। এর আগে এ মাসের শুরুতে একটি হামলার চেষ্টা করা হয়েছিল বলে জানায় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। সেক্ষেত্রেও তারা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। এতে দুই সন্ত্রাসী নিহত হয়। আর দুইজনকে জীবিত গ্রেফতার করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ২০০০ সালের শুরুর দিকে সৌদি আরবে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান বৃদ্ধি পেয়েছে। গত কয়েক বছরে বড় কোনো হামলার কথা শোনা যায়নি।


আরো সংবাদ

Instagram Web Viewer
agario agario - agario
hd film izle pvc zemin kaplama hd film izle Instagram Web Viewer instagram takipçi satın al Bursa evden eve taşımacılık gebze evden eve nakliyat Canlı Radyo Dinle Yatırımlık arsa Tesettürspor Ankara evden eve nakliyat İstanbul ilaçlama İstanbul böcek ilaçlama paykasa