২১ মে ২০১৯

প্রিন্স বিন সালমানের জন্য পাকিস্তানে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা

প্রিন্স বিন সালমানের জন্য পাকিস্তানে নিশ্চদ্র নিরাপত্তা - সংগৃহীত

সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ নিব সালমান আজ শনিবার পাকিস্তান সফর শুরু করছেন। এই সফরকে সামনে রেখে সৌদি আরবের সরকারের ছয় সদস্যের প্রতিনিধিদল ইসলামাবাদ পৌঁছেছে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আমন্ত্রণে ক্রাউন প্রিন্স পাকিস্তান সফর করছেন। তিনি পাকিস্তানে বিপুল বিনিয়োগ চুক্তি করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এক্সপ্রেস নিউজ জানিয়েছে, প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের দু দিনের সফরের প্রস্তুতি তদারকি করবে সৌদি প্রতিনিধিদলটি।
এদিকে সৌদি প্রিন্সকে স্বাগত জানানোর সব প্রস্তুতি চূড়ান্ত হয়েছে।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, পাকিস্তানের আকাশে প্রবেশ করা মাত্রা জঙ্গি বিমানগুলো প্রিন্স মোহাম্মদের বিমানটি পাহারা দেবে। রাওয়ালপিন্ডির নূর খান এয়ারবেজে প্রিন্সের বিমানটি অবতরণ করবে। এ সময় পাকিস্তানজুড়ে সব বাণিজ্যিক বিমানের চলাচল বন্ধ থাকবে।
বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ স্থানীয় ও বেসরকারি এয়ারলাইনগুলোকে বিষয়টি অবহিত করেছে।
সিএএ বেসরকারি এয়ারলাইন্সগুলোকে এক সার্কুলারে জানিয়েছে, প্রিন্সের বিমান অবতরণের সময়ের সাথে মিল রেখে বেসরকারি এয়ারলাইন্সগুলো তাদের সময়সূচি নির্ধারণ করবে।

এছাড়া নূর খান এয়ারবেইজ ও বেনজির ভুট্টো ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের পার্কিং এলাকা থেকে সব প্রাইভেট বিমান বৃহস্পতিবারের মধ্যে সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
নূর খান এয়ারবেইজে অবতরণের পর সড়ক পথে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে প্রিন্সকে ইসলামাবাদে প্রাইম মিনিস্টার হাউসে নেয়া হবে। অন্তত ১০০ ওয়ার্ডন সিটি ট্রাফিক পুলিশ এ সময় দায়িত্ব পালন করবে।

এদিকে রাজধানীর নিরাপত্তাব্যবস্থা মূল্যায়ন করতে ১১৯ সদস্যবিশিষ্ট আগাম সৌদি দলও ইসলামাবাদ এসেছে।
রাজকীয় অতিথিদের জন্য ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৫ তারকা হোটেলগুলোতে সাত শতাধিক কক্ষ বুক করা হয়েছে। ইসলামাবাদের সেক্টর এফ-৫/১-এর একটি হোটেলে অগ্রসর সৌদি দলের সদস্যরা অবস্থান করছে। সালমানের প্রতিনিধিদলের জন্য এসব কক্ষ বুক করা হয়েছিল।
প্রিন্সের সফরকালে সৌদি আরব আটটি বিনিয়োগ চুক্তির কথা ঘোষণা করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রিন্স সালমানের সাথে উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিদল থাকছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন রাজপরিবারের সদস্য, গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী ও শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী।

ক্রাউন্স প্রিন্স ২০১৭ সালের এপ্রিলে ওই পদ লাভের পর এই প্রথম তিনি বা এই মর্যাদার কেউ পাকিস্তান সফরে যাচ্ছেন।
সফরকালে প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির সাথে সাক্ষাত করবে। তিনি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার সাথেও সাক্ষাত করবেন। দুই দেশের মধ্যকার পার্লামেন্টারি সহযোগিতা বাড়ানো নিয়ে আলোচনা করার জন্য সিনেটের একটি প্রতিনিধিদলও ক্রাউন প্রিন্সের সাথে সাক্ষাত করবেন।
সৌদি প্রিন্সের সাথে থাকা সৌদি মন্ত্রীরা তাদের প্রতিপক্ষের সাথে সংশ্লিষ্ট খাতে দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করবেন। দুই দেশ বেসরকারি খাতে সহযোগিতার সুযোগ নিয়েও কথা বলবেন।
বিনিয়োগ, অর্থায়ন, বিদ্যুৎ, নবায়নযোগ্য জ্বালানি, অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা, মিডিয়া, সংস্কৃতি ও খেলাধুলাসহ বিভিন্ন খাতে বেশ কয়েকটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকে সই করবে পাকিস্তান ও সৌদি আরব।
সাউথ এশিয়ান মনিটর


আরো সংবাদ




agario agario - agario