২৪ জানুয়ারি ২০১৯

সিরিয়া থেকে মার্কিন সামরিক সরঞ্জাম প্রত্যাহার শুরু

সিরিয়ায় মার্কিন সেনা কনভয় - ফাইল ছবি(এএফপি)

সিরিয়া থেকে সামরিক সরঞ্জাম প্রত্যাহার করা শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। সেনা প্রত্যাহারে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেয়া নির্দেশ বহাল রয়েছে এমন খবরের পর এসব সরঞ্জাম সরিয়ে নেয়া শুরু করা হয়। বৃহস্পতিবার পেন্টাগনের এক প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা একথা জানান। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘কিছু সরঞ্জাম সরানো শুরু হয়েছে’। ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘সিরিয়া থেকে কিছু সামরিক সরঞ্জাম সরিয়ে নেয়ার খবর আমি নিশ্চিত করছি। তবে নিরাপত্তার কারণে এখন আমি এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাতে পারছি না।’

২০১৮ সালের ১৯ ডিসেম্বর সিরিয়া থেকে মার্কিন বাহিনীকে পুরোপুরি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। টুইটার পোস্টে তিনি বলেন, ‘আমরা সিরিয়ায় আইএসকে পরাজিত করেছি। ট্রাম্পের প্রেসিডেন্সিতে শুধু আইএসকে হটানোর জন্যই তাদের সেখানে (সিরিয়া) রাখা হয়েছিল।’

এর আগে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছিল, মার্কিন কেন্দ্রীয় কমান্ড জাহাজ, বিমান ও স্থলভাগের সামরিক সরঞ্জাম চিহ্নিত করেছে যেগুলো ব্যবহার করা হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন অনেকে। তাদের মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত পদত্যাগী প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস। আফগানিস্তান ও সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহারের মতো কিছু সিদ্ধান্তের বিরোধিতার সূত্রে তিনি পদত্যাগ করেন। ট্রাম্পের ঘোষণার পর থেকেই প্রশাসনিক কর্মকর্তারা সে মোতাবেক পদক্ষেপ নিচ্ছেন এবং পরিকল্পনা মতো এগিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে সিরিয়া থেকে সব ইরানি সেনা তাড়ানোর অঙ্গীকার করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্ররা পিছু ধাওয়া করে সিরিয়া থেকে ‘প্রতিটি ইরানি সেনাকে’ হটিয়ে দেবে। একটি সেনাও আর অবশিষ্ট থাকবে না। সতর্ক করে দিয়ে পম্পেও বলেন, সিরিয়ায় ইরান এবং তাদের প্রক্সিদাতারা বিতাড়িত না হওয়া পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোয় যুক্তরাষ্ট্র পুনর্গঠনের জন্য কোনো সাহায্য দেবে না।


আরো সংবাদ