২৪ এপ্রিল ২০১৯

এবার ফিলিস্তিনি হাসপাতালে সহায়তা বন্ধ করল যুক্তরাষ্ট্র

চিকিৎসা সেবা ব্যহত হবে ফিলিস্তিনিদের -

এবার ফিলিস্তিনিদের চিকিৎসা দেয় এমন হাসাপাতালে অর্থ সহাযতা বন্ধ করল যুক্তরাষ্ট্র। ইসরাইল অধিকৃত পূর্ব জেরুসালেমে অবস্থিত হাসপাতালগুলো, যার রোগী প্রধানত ওই এলাকায় এখনো বসবাস করছে এমন ফিলিস্তিনিরা। ইসরাইলের হারেৎজ পত্রিকার এক রিপোর্টে
শনিবার একথা বলা হয়েছে।

পত্রিকাটি বলছে, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন দুই কোটি মার্কিন ডলারের বেশি অর্থ সহায়তা বাতিল করেছে। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক কর্মকর্তা হারেৎজ পত্রিকাকে জানিয়েছেন, ফিলিস্তিনিদের প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা বন্ধের বৃহত্তর পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এই সহযোগিতা বাতিল করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা করেছেন, ফিলিস্তিনিরা যতক্ষণ পর্যন্ত না ইসরাইলের সাথে শান্তি চুক্তিতে সম্মত হবে, তার দেশ ততক্ষণ পর্যন্ত কোন সহযোগিতা দেবে না ফিলিস্তিনকে।

ট্রাম্প বলেন, আমরা ফিলিস্তিনি নাগরিক ও নেতাদের জন্য যে অর্থ দিতাম, তা বাতিল করেছে। যুক্তরাষ্ট্র তাদের বড় অঙ্কের অর্থ দিত। এবং
আমি বলতে চাই, আপনারা অর্থ পাবেন; কিন্তু চুক্তি করার আগে নয়। যদি চুক্তি না করেন, আমরা আপনাদের কোন অর্থ আর দেব না’।

যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপের ফলে পূর্ব জেরুসালেমে অন্তত পাঁচটি হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম ব্যহত হতে পারে। এই হাসপাতালগুলোর মধ্যে রয়েছে আগুস্টা ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল ও সেন্ট জন চক্ষু হাসপাতাল। শেষোক্ত হাসপাতালটি পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুসালেমের সবচেয়ে বড় চক্ষু চিকিৎসালয়।

ইউএসএইডের সাবেক সহকারি প্রশাসন ডেভিড হারডেন আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে সহযোগিতা বাতিলের ফলে আগুস্টা ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম ভেঙে পরতে পারে।

প্রসঙ্গত, পূর্ব জেরুসালেমের এই হাসপাতালগুলো শুধু এই শহরটিই নয়, এর বাইরের পশ্চিম ও অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার লোকদেরও চিকিৎসা দিয়ে থাকে।

উল্লেখ এর আগে গত সপ্তাহে ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য ত্রাণ বিতরণ করে এমন একটি জাতিসঙ্ঘের প্রকল্পকে অর্থ বরাদ্দ বাতিল করেছে
ট্রাম্প প্রশাসন। ইউএনআরডব্লিউএ নামের সংস্থাটি ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের মানবিক সহায়তা দিয়ে থাকে। সংস্থাটির সবচেয়ে বড় ডোনার ছিলো ওয়াশিংটন। তারা সংস্থাটির ব্যয়ের ২৫ শতাংশ অনুদান দিতো।

ফিলিস্তিনিরা বলছেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে দেয়া স্বীকৃতি বাতিল না করলে তারা যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্ততা মানবে না। মুসলিমদের এই পবিত্র নগরিটি দুই দফা যুদ্ধে দখল করেছে ইসরাইল। এখান থেকে উৎখাত করেছে ফিলিস্তিনিদের। দীর্ঘদিন এই ইস্যুটি ইসরাইল-ফিলিস্তিন সঙ্কটের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে। ফিলিস্তিনিরাও জেরুসালেমকে তাদের দেশের রাজধানী হিসেবে মনে করে। কিন্তু ট্রাম্প বিশ্ব সম্প্রদায়ের বিরোধীতাকে উপেক্ষা করে জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরকার ক্ষমতায় নেয়ার পর থেকেই ফিলিস্তিনিদের ওপর একের পর এক খড়গ নেমে আসছে। ট্রাম্প শুরুটা করেছেন জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে এবং সেখানে ইসরাইলস্থ মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তরের ঘোষণা দিয়ে। যদিও জাতিসঙ্ঘে ভোটাভুটিতে তিনি পরাজিত হয়েছে বিপুল ব্যবধানে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইসরাইলকে খুশি রাখতেই একের পর এক বিতর্কীত সিদ্ধান্ত নিচ্ছে ফিলিস্তিন বিষয়ে। গত সপ্তাহে উদ্বাস্তুদের জন্য যে ত্রাণ সহযোগিতা বন্ধ করেছে যুক্তরাষ্ট্র, তার ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হবে পঞ্চাশ লাখের বেশি ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তু। পশ্চিম তীর, গাজা, জর্দানসহ বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নেয়া এসব লোকরা উদ্বাস্তু হয়েছে ইসরাইলি দখল দারিত্বের কারণে।


আরো সংবাদ

iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

Bursa evden eve nakliyat
arsa fiyatları tesettür giyim
Canlı Radyo Dinle hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al
hd film izle
gebze evden eve nakliyat