২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজনে কাতারের পাশে ইরান

বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজনে কাতারের পাশে ইরান - সংগৃহীত

২০২২ সালে কাতারে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ ফুটবলের জন্য ইরানের গণমাধ্যমের সমর্থন চেয়েছে দোহা। ইরান সফররত কাতারি সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইউসুফ ইব্রাহিম আল-মালিকি সম্প্রতি একথা বলেছেন।

ইউসুফ ইব্রাহিম আল-মালিকি বলেন, মুসলিম বিশ্বের মধ্যে কাতার সর্বপ্রথম ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে এবং এজন্য নিঃসন্দেহে ইরানের গণমাধ্যম বিশেষ করে রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ইরনা ও অন্যান্য গণমাধ্যমের সহযোগিতা প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে ইরানি গণমাধ্যম প্রকৃত সত্য তুলে ধরবে বলেও তিনি আশা করেন। বিশ্বকাপের মতো বড় ইভেন্টের আয়োজক দেশ হতে পেরে কাতার গর্বিত বলেও মন্তব্য করেন ইউসুফ ইব্রাহিম।

কাতারি সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, আগামী বিশ্বকাপের অনুষ্ঠানে মুসলিম দেশগুলোর ভালো প্রতিনিধি হিসেবে নিজেকে তুলে ধরতে পারবে কাতার। তিনি আশা করেন, অন্য মুসলিম দেশগুলোও এক সময় বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ হবে।  

এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় সংবাদ সংস্থা বা ওএএনএ’র ৪৬তম নির্বাহী বোর্ডের বৈঠকে যোগ দিতে কাতারের এ কর্মকর্তা তেহরান সফর করছেন। আগামীকাল তেহরানে এ বৈঠকে অনুষ্ঠিত হবে।

কাতার বিশ্বকাপের সময়সূচি ঘোষণা
১৪ জুলাই ২০১৮

চলতি বিশ্বকাপের মধ্যেই ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের দিনক্ষণ ঘোষণা করলো ফিফা। তবে টুর্নামেন্টের সময়সূচি সবাইকে চমকে দিয়েছে। কারণ প্রথমবারের মতো শীতকালে বসবে ফুটবল বিশ্বকাপের আসর।

কাতারে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়ে প্রথম থেকেই বিতর্কের মুখে ফিফা। আর এবার ক্রীড়াসূচিও চিন্তায় ফেলল ক্লাব ফুটবলকে। কাতারের কাঠফাটা গরমের কথা মাথায় রেখেই শীতকালে টুর্নামেন্ট আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফিফা। গরমে সাধারণত তাপমাত্রা থাকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরেই। শীতে সে দেশের তাপমাত্রা ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ঘোরাফেরা করে।

শুক্রবারই শীতকালীন বিশ্বকাপ আয়োজনের খবর নিশ্চিত করে জানিয়ে দেয়া হলো, ২০২২ সালের ২১ নভেম্বর শুরু হবে বিশ্বকাপ। ফাইনাল ১৮ ডিসেম্বর। আর এখানেই দেখা দিয়েছে সমস্যা। কারণ মৌসুমের এই সময়টায় ক্লাব ফুটবলের লিগগুলো চলতে থাকে পুরোদমে। তাই বিশ্বকাপের সাথে মিলিয়ে কীভাবে ক্লাব ফুটবলের ক্রীড়াসূচি তৈরি হবে তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। ইংল্যান্ড দলের সাবেক তারকা গ্যারি লিনেকার ক্রীড়াসূচির বিরোধিতায় সরব হয়েছেন ইতোমধ্যেই।

তিনি বলেন, ২০২২ সালের ২১ নভেম্বর থেকে ১৮ ডিসেম্বর বিশ্বকাপ হবে। কিন্তু গরমকালেই মানুষ বিশ্বকাপ দেখতে অভ্যস্ত। শীতকালের ক্লাব মৌসুমে নয়। তাই আবার বিশ্বকাপের জন্য আট বছর অপেক্ষা করতে হবে।

সাধারণত জুন-জুলাই মাসেই বিশ্বকাপের আসর বসে। সেইভাবেই টুর্নামেন্ট শেষ হলে শুরু হয় ক্লাব ফুটবলের মৌসুম। কিন্তু আগামী বিশ্বকাপে তেমনটা হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। তাই ক্রীড়াসূচি নিয়ে অসন্তোষ রয়েই গেল। এদিকে রাশিয়ার মতোই আগামী বিশ্বকাপেও শেষবারের জন্য ৩২টি দেশ অংশ নেয়ার কথা। কারণ ২০২৬ কানাডা-মেক্সিকো তথা আমেকিরা বিশ্বকাপে ৪৮টি দল অংশ নেবে বলে ইতোমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা।

তবে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ানি ইনফান্টিনো বলেন, কাতারেও ৪৮টি প্রতিযোগী দলকে দেখা যেতে পারে। সে নিয়ে আয়োজক দেশের সাথে আলোচনা করেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


আরো সংবাদ