২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কুয়েতে চাকরি হারাচ্ছেন ৩ হাজার ১৪০ প্রবাসী

কুয়েতে চাকরি হারাচ্ছেন ৩ হাজার ১৪০ প্রবাসী - সংগৃহীত

কুয়েতের সিভিল সার্ভিস কমিশনের প্রধান আল জাসার জানান, অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সহযোগিতার মাধ্যমে কুয়েতি নাগরিক নন এমন ৩ হাজার ১৪০ জনের সাথে চাকরির চুক্তি বাতিল করা হয়েছে। এরা কুয়েতের সরকারি সংস্থায় নিয়োজিত বিদেশি।

মন্ত্রণালয়, বিভাগসহ সবগুলো সরকারি সংস্থার বাজেট কমাতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দেশটির কর্মসংস্থান খাতে সংস্কারনীতি বাস্তবায়নের প্রথম বছরে এ ঘোষণা আসলো।

আল জাসার বলেন, কুয়েত সিভিল সার্ভিস কমিশন ২০১৭ সালে যে সরকারি চাকরির পুনর্বাসনের যে নীতি গ্রহণ করেছে সেটার আলোকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

গত সেপ্টেম্বরে দেশটির সিভিল সার্ভিস কমিশন একটি ডিক্রি জারি করে যাতে বলা হয়, আগামী ৫ বছরের বছরের মধ্যে সরকারি চাকরিতে প্রবাসীদের স্থলে কুয়েতিদের নিয়োগ দেওয়া হবে। কুয়েতে বিদেশিরা মোট জনসংখ্যার দুই-তৃতীয়াংশ। ২০১৬ সালের মাঝামাঝিতে বিদেশিদে সংখ্যা ছিল ৭ মিলিয়ন।

ইরাক ও কুয়েতে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটি কেন?

১৬ জুলাই ২০১৮

ইরাক ও কুয়েতে আরো সামরিক ঘাঁটি প্রতিষ্ঠা করবে আমেরিকা। মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সেনা উপস্থিতির প্রচণ্ড বিরোধিতা উপেক্ষা করেই আমেরিকা এসব সামরিক ঘাঁটি প্রতিষ্ঠা করছে।

ইরাকের ইরবিল থেকে প্রকাশিত ‘ব্যাসনিউজ’ সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলীয় আনবার প্রদেশের কায়িম শহরে একটি সামরিক ঘাঁটি উদ্বোধনের পরিকল্পনা নিয়েছে আমেরিকা। শহরটি সিরিয়া সীমান্তে অবস্থিত। আনবার প্রদেশের আইন আল-আসাদ ও হাব্বানিয়া ঘাঁটির পাশাপাশি নতুন এ ঘাঁটি কাজ করবে।

মার্কিন নতুন ঘাঁটি থেকে আনবার প্রদেশের বেশ কয়েকটি শহর ও ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলীয় মরুভূমি এবং কৌশলগত বাগদাদ-দামেস্ক আন্তর্জাতিক মহাসড়কের ওপর নজরদারি করা হবে।  ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে ইরাকের কর্মকর্তারা বহুবার আহ্বান জানানো সত্ত্বেও আমেরিকা নতুন সামরিক ঘাঁটি প্রতিষ্ঠা করছে।

কুয়েতের দৈনিক আল-রাই জানিয়েছে, শিগগিরি কুয়েত সিটির আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের কাছে আমেরিকা একটি বিশাল সামরিক ঘাঁটি চালু করবে। এ ঘাঁটি থেকে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে মার্কিন সেনাদের কাছে সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহ করা হবে।

 


আরো সংবাদ