২১ জুলাই ২০১৯

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বড়পুকুরিয়া মামলার পরবর্তী শুনানি ১৮ জুলাই

-

বিএনপি চেয়ারপারসন কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির তারিখ পিছিয়ে আগামী ১৮ জুলাই দিন ধার্য করেছেন আদালত।

কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার ২ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক এ এস এম রুহুল ইমরানের আদালত আজ বুধবার এ আদেশ দেন।

আজ বুধবার এ বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য ছিল। কিন্তু খালেদা জিয়া অসুস্থ হওয়ায় তাকে আদালতে হাজির করা যায়নি বলে কাস্টডি ওয়ারেন্টে জানায় কারা কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা সময় প্রার্থনা করলে আদালত শুনানির নতুন তারিখ ধার্য করেন।

আজ খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন মাসুদ আহমেদ তালুকদার, জিয়াউদ্দিন জিয়া, জয়নুল আবেদীন মেজবাহ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে দায়ের করা বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। এরপর গত ২৬ ফেব্রুয়ারি বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেয়া হয়। এরপর গত ১৩ মার্চ থেকে একাধিক কার্যদিবসে অসুস্থতার কারণে খালেদা জিয়াকে আদালতে না আনায় মামলার কার্যক্রম মুলতবি করা হয়।

উল্লেখ্য, দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনিতে উত্তোলন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়ম এবং রাষ্ট্রের ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা ক্ষতি ও আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় খালেদা জিয়াসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। পরে ওই বছরের ৫ অক্টোবর পুলিশ তদন্ত করে আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি আইনের ৪০৯/১০৯ তৎসহ ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অভিযোগপত্র দাখিল করেন।


আরো সংবাদ




gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi