১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

মাদকবিরোধী অভিযানে মৃত্যুর তদন্তের আহ্বান ইইউর

মাদকবিরোধী অভিযানে মৃত্যুর তদন্তের আহ্বান ইইউর - সংগৃহীত

মাদকবিরোধী অভিযানে সন্দেহভাজন অপরাধীদের মৃত্যুর ঘটনাগুলো যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে পূর্ণ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

ঢাকায় ইইউ রাষ্ট্রদূতরা সোমবার এক যৌথ বিবৃতিতে এ আহ্বান জানিয়েছেন। এতে বলা হয়েছে, মাদকের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিশ্বব্যাপী একটি সমস্যা। তবে বাংলাদেশে গত ৪ মে থেকে চালানো মাদকবিরোধী অভিযানে অতিরিক্ত শক্তি প্রয়োগ এবং পরিণতিতে ১২০ জনের বেশী মানুষ নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাংলাদেশ আইনের শাসন সমুন্নত রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্দ। এ জন্য আইন অনুযায়ী এবং আন্তর্জাতিক মান ও নীতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর সব কর্মকান্ড পরিচালনা নিশ্চিত করা প্রয়োজন। আমরা আশা করি মাদকবিরোধী অভিযানে সন্দেহভাজন অপরাধীদের মৃত্যুর ঘটনাগুলো যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরন করে পূর্ণ তদন্ত করা হবে।

বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন ইইউ ডেলিগেশন, নরওয়ে, ইটালি, বৃটেন, জার্মানি, নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক, স্পেন, সুইডেন, ও ফ্রান্সের মিশন প্রধানরা।

আরো পড়ুন : মাদক বিরোধী অভিযানে যারা মারা যাচ্ছে তাদের কেউই নিরীহ নয় : কাদের
বাসস
এর আগে গত ২৭ মে  আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, মাদক বিরোধী অভিযানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে বন্দুকযুদ্ধে যারা মারা যাচ্ছেন তারা কেউই নিরীহ নয়। তিনি বলেন, মাদক বিরোধী অভিযানে যারা মারা যাচ্ছেন তারা প্রত্যেকেই মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। তারা দেশ ও জাতির শত্রু।

ওবায়দুল কাদের ২৭মে জেলা সার্কিট হাউজে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট নিরসন বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। সভায় চট্টগ্রাম বিভাগের ১১টি জেলার ডিসি,এস পি, জনপ্রতিনিধি, চট্টগ্রাম বিভাগের ডিআইজি এবং সড়ক বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তা অংশ গ্রহণ করেন। 
সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ঈদের দশ দিন আগে থেকে ঈদের পাঁচ দিন পরে পর্যন্ত মহাসড়কে ভারী যানবাহর চলাচল ও খোড়াখুড়ি বন্ধ থাকবে।

তিনি বলেন, মহাসড়কের উল্টো পথে কেউ যেমন গাড়ী চালাতে পারবে না তেমনি ফিটনেস বিহীন গাড়ী মহাসড়কে চলাচল করতে পারবে না। কাদের বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জেলার ফতেহপুর ওভারপাসের নির্মাণ কাজ ঈদের আগেই শেষ হবে এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের তিনটি বড় ব্রিজের নির্মাণ কাজ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হবে।

 


আরো সংবাদ