film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
ডিসিসিআইর সংবাদ সম্মেলন

এসএমইতে এক অঙ্কের সুদ কার্যকরের দাবি

-

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে এক অঙ্কের সুদ কার্যকর করার দাবি জানিয়েছে ঢাকা চেম্বার অব কমার্র্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)। সংস্থাটি বলেছে, দেশের কর্মসংস্থানে বেশি ভূমিকা রাখে এ খাত। অথচ এ খাতে ব্যাংকগুলো ৯ শতাংশ সুদে ঋণ দিতে চাচ্ছে না। তারা এসএমই ও ক্ষুদ্রঋণকে গুলিয়ে ফেলছেন।
গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে ডিসিসিআই সভাপতি শামস মাহমুদ এ কথা বলেন। তিনি বলেন, চতুর্থ বিপ্লবের কারণে অনেক দক্ষ জনশক্তি চাকরি হারাবেন। এ দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে তাদের উদ্যোক্তা তৈরি করা সম্ভব এসএমইর মাধ্যমে। ডিসিসিআই এটি করার পরিকল্পনা করছে। এতে কয়েকটি দাতাগোষ্ঠীও তহবিল জোগান দেবে। দেশের সমসাময়িক অর্থনীতির অবস্থান ও ২০২০ সালে ডিসিসিআইর বার্ষিক কর্মপরিকল্পনা জানাতে এ সংবাদ সম্মেলনটির আয়োজন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে ৯ শতাংশ ব্যাংক ঋণ নিশ্চিতের দাবি জানিয়ে ডিসিসিআই সভাপতি বলেন, ৯ শতাংশ ব্যাংক ঋণের সুদহার বাস্তবায়নের আগে বেশ কয়েকবার পিছিয়েছে। এটি নিয়ে দেশের সর্বোচ্চ মহল পদক্ষেপ নিয়েছে। আমরা চাই এবার সঠিক সময়ে এক অঙ্কে ব্যাংক ঋণের বিষয়টি বাস্তবায়ন হবে।
এক প্রশ্নের জবাবে ডিসিসিআই সভাপতি বলেন, উন্নয়নশীল অর্থনীতিতে খেলাপি ঋণ বাড়বে। কিন্তু কারা ইচ্ছাকৃত খেলাপিÑ তা বাংলাদেশ ব্যাংককে খুঁজে বের করতে হবে। বাজেটের ঘাটতি মেটানো ও বৃহৎ অবকাঠামো নির্মাণে সরকার ব্যাংক খাত থেকে বেশি ঋণ নিচ্ছে। এতে বেসরকারি খাতে ঋণপ্রবাহে তেমন সমস্যা হবে না।
মার্কিন বাজারে তৈরী পোশাক রপ্তানিতে জিএসপি সুবিধা ফের আদায়ে কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক উদ্যোগের প্রয়োজন আছে কি নাÑ এমন প্রশ্নের উত্তরে ডিসিসিআই সভাপতি বলেন, তৈরী পোশাক খাতের জিএসপি বাতিল রাজনৈতিক কারণে হয়নি। কিন্তু রপ্তানি বৃদ্ধিতে ২০২৪ সালের পরে আমাদের জিএসপি সুবিধার প্রয়োজন হবে। এ সুবিধা আদায়ের জন্য সরকারের অর্থনৈতিক কূটনীতির উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন।
পুঁজিবাজারের সমস্যার কারণও তুলে ধরে ডিসিসিআই সভাপতি বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি বিনিয়োগকারী উভয়ের মধ্যে ডে-ট্রেডিং মানসিকতা রয়েছে। বন্ড মার্কেটের অভাব রয়েছে। এর সাথে ভালো কোম্পানিরও অভাব রয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে চলতি বছরে দেশের অর্থনীতির অগ্রগতির জন্য ১১ খাতকে বিশেষ অগ্রাধিকার দেয়ার কথা জানায় ডিসিসিআই। এর মধ্যে রফতানি বহুমুখীকরণ, জনশক্তি উন্নয়ন, অর্থনীতির অগ্রগতির জন্য কূটনৈতিক সম্পর্ক বাড়ানো, পুঁজিবাজার পুনর্গঠন, জ্বালানি নিরাপত্তা, চতুর্থ শিল্পবিপ্ল¬ব, ইজ অব ডুইং বিজনেসে অগ্রগতি, গবেষণা ও উন্নয়ন, অবকাঠামো ও এসএমই খাতে জোর দেয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডিসিসিআইয়ের ঊর্ধ্বতন সহসভাপতি এন কে এ মবিন, সহসভাপতি মোহাম্মদ বাশিরউদ্দিন, পরিচালক আরমান হক, আশরাফ আহমেদ, দীন মোহাম্মদ, এনামুল হক পাটোয়ারী, ইঞ্জিনিয়ার আল আমিন, রাশেদুল করিম মুন্না, জিয়া উদ্দিন, মনোয়ার হোসেন, ইঞ্জিনিয়ার শামসুজ্জোহা চৌধুরী, এস এম জিল্ল¬ুর রহমান ও ওয়াকার আহমেদ চৌধুরী প্রমুখ।


আরো সংবাদ