২২ নভেম্বর ২০১৯
জিয়ার মাজারে বিএনপির শ্রদ্ধা

জীবদ্দশায় খোকাকে দেশে ঢুকতে দেয়নি সরকার : মির্জা ফখরুল

জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে গতকাল শহীদ জিয়ার মাজারে বিএনপির শ্রদ্ধা নিবেদন হনয়া দিগন্ত -

সাত নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে বিএনপি। এ ছাড়া দিবসটি উদযাপনে ঢাকার বাইরে জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়েও আলোচনা সভা করেছে বিএনপি এবং বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে শহীদ জিয়ার মাজারে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এ সময় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান, সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, মোহাম্মদ শাহজাহান, শামসুজ্জামান দুদু, কেন্দ্রীয় নেতা মশিউর রহমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, গোলাম আকবর খন্দকার, সিরাজউদ্দিন আহমেদ, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, আমিনুল হক, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, শিরিন সুলতানা, জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের পক্ষে দলের সহ প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খান, স্বেচ্ছাসেবক দলের শফিউল বারী বাবু, আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, গোলাম সারোয়ার, সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, যুবদলের সাইফুল আলম নীরব, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, ছাত্রদলের ফজলুর রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামল সহ কেন্দ্রীয় ও অঙ্গসংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। পরে তারা সেখানে বিশেষ মুনাজাতে অংশ নেন। এ ছাড়া দিনটি উপলক্ষে গতকাল সকালে নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে উত্তোলন করা হয় দলীয় পতাকা। রঙিন পোস্টারও প্রকাশ করে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনগুলো।
মাজার প্রাঙ্গণে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সরকার সকাল-বিকেল মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বললেও ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার মতো একজন অকুতোভয় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে জীবদ্দশায় দেশে ঢুকতে দেয়নি। এরকম ঘটনার যেন আর পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেই আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বরের চেতনায় জনগণের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে ইনশা আল্লাহ।
ড্যাবের শ্রদ্ধাঞ্জলি : জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা জানিয়েছে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শ্রদ্ধা নিবেদনকালে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ডা: হারুন আল রশিদ, মহাসচিব অধ্যাপক ডা: আবদুস সালাম, ড্যাবের প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা: ফরহাদ হালিম ডোনার, ডা: মো: আবদুস সেলিম, ডা: মো: শহিদুল আলম, ডা: মো: মেহেদী হাসান, ডা: মো: সিরাজুল ইসলাম, ডা: এরফানুল হক সিদ্দিকী, ডা: মো: আবুল কেনানসহ শতাধিক চিকিৎসক উপস্থিত ছিলেন।
নেত্রকোনায় আলোচনা : নেত্রকোনা জেলা বিএনপির উদ্যোগে বিপ্লব ও সংহতি দিবসের আলোচনা হয়। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা: মো: আনোয়ারুল হকের সভাপতিত্বে সভায় জেলা বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
বগুড়া অফিস অফিস
বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে বগুড়া জেলা বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, শহীদ জিয়ার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও আলোচনা সভা করেছে। জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ফজুলল বারী তালুকদার বেলালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট এ কে এম মাহবুবর রহমান ও সাবেক এমপি হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, কেন্দ্রীয় সদস্য জয়নাল আবেদীন চাঁন, আলী আজগর তালুকদার হেনা, লাভলী রহমান, বিএনপি নেতা রেজাউল করিম বাদশা, মাহবুবর রহমান বকুল, খাজা ইফতেখার আহমেদ, আবদুর রহমান, ডাক্তার মামুনুর রশিদ মিঠু, এম আর ইসলাম স্বাধীন, কে এম খায়রুল বাশার, তাহা উদ্দিন নাহিন, মাফতুন আহমেদ খান রুবেল, তৌহিদুল আলম মামুন, আলী হায়দার তোতা, হামিদুল হক চৌধুরী হিরু, যুবদলের আহ্বায়ক খাদেমুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবকদলের আহ্বায়ক এ বি এম মাজেদুর রহমান জুয়েল, ছাত্রদলের সভাপতি আবু হাসান, শ্রমিকদলের মোশারফ হোসেন স্বপন, মহিলা দলের নাজমা আক্তার, কৃষকদলের আকরাম হোসেন মন্ডল, এস এম রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে সুনামগঞ্জে বিএনপির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সহসভাপতি ওয়াকিফুর রহমান গিলমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুলের পরিচালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য কলিম উদ্দিন আহমেদ মিলন। অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সহসভাপতি আবদুল লতিফ জেপি, অ্যাডভোকেট মঈন উদ্দিন সোহেল, অ্যাডভোকেট আব্দুল হক, অ্যাডভোকেট শেরেনুর আলী, যুগ্ম সম্পাদক নুর হোসেন, আমিরুল হক, জুনাব আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ সাইফুল্লাহ হাসান জুনেদ, দফতর সম্পাদক জামাল উদ্দিন বাকের, আবুল কালাম আজাদ, জেলা কৃষকদল সভাপতি আ ত ম মিসবাহ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শামছুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক মনাজির হোসেন, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মামুনুর রশিদ কয়েছ, মৎস্যজীবী দলের সভাপতি বাহারুল ফেরদৌস, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রায়হান উদ্দিন প্রমুখ।
রংপুর অফিস জানায়, জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী রংপুর মহানগর ও জেলা শাখার পৃথক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল করেছে।
সকালে রংপুর মহানগর শাখার আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও রংপুর মহানগর আমির অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বেলালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জামায়াতের রংপুর মহানগর সেক্রেটারি অধ্যাপক আনোয়ারুর ইসলাম, কোতোয়ালি সাংগঠনিক থানা সেক্রেটারি ফরহাদ হোসেন মণ্ডল, সাতগাড়া সাংগঠনিক থানা সেক্রেটারি বেলাল হোসেন, সাবেক ছাত্রনেতা হারুনর রশিদ প্রমুখ।
অন্য দিকে দুপুরে রংপুর জেলা শাখার উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন জামায়াতে ইসলামী রংপুর জেলা আমির মাওলানা এ টি এম আজম খান। সেখানে বক্তব্য রাখেন জেলা সেক্রেটারি অধ্যাপক গোলাম রব্বানী প্রমুখ। পরে দেশের কল্যাণ ও জাতির শান্তি সমৃদ্ধি এবং অগ্রগতি কামনা করে জেলা আমির মাওলানা এ টি এম আজম খানের পরিচালনায় দোয়া করা হয়।
সিলেট মহানগর জামায়াতের একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট মহানগর আমির অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেছেন, ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস। আমাদের জাতীয় জীবনে এ দিবসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম। ১৯৭৫ সালের এই দিনে দেশের সিপাহি-জনতা ঐক্যবদ্ধভাবে সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে এ দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বকে হেফাজত করেছিল।
জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে সিলেট মহানগর জামায়াত আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে উপরি উক্ত কথা বলেন। মহানগর সেক্রেটারি মাওলানা সোহেল আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন মহানগর নায়েবে আমির হাফিজ আবদুল হাই হারুন ও মো: ফখরুল ইসলাম, সহকারী সেক্রেটারি মো: শাহজাহান আলী, অ্যাডভোকেট আবদুর রব ও ড. নুরুল ইসলাম বাবুল, জামায়াত নেতা মাওলানা আবদুল মুকিত, অ্যাডভোকেট আলিম উদ্দিন, মাওলানা মুুজিবুর রহমান ও রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে রাজশাহীতে আলোচনা সভা করেছে জামায়াতে ইসলামী। বিকেলে রাজশাহী মহানগর জামায়াতের উদ্যোগে নগরীর একটি মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে সভাপতির বক্তব্যে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শূরার সদস্য ও রাজশাহী মহানগর জামায়াতের আমির ড. কেরামত আলী বলেন, বিচারের নামে প্রহসন বন্ধ করে জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলামসহ কারাবন্দী শীর্ষ নেতাদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে।

 


আরো সংবাদ

আজানের মধুর আওয়াজ শুনতে ভিড় অমুসলিমদের (২৫৪৫৭)ধর্মঘট প্রত্যাহার : কী কী দাবি মেনে নিয়েছে সরকার (২০৯৩৪)মানবতাকে জয়ী করেছে পাকিস্তান : রাবিনা ট্যান্ডন (১৯৪৬৭)কম্বোডিয়ায় কাশ্মির ইস্যুতে বক্তব্য, প্রতিবাদ করায় ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা হলো বিজেপি নেতাকে (১৯১৮৮)ব্যাংকে ফোন দিয়ে তদবির করে ‘ছাত্রলীগ সভাপতি’ আটক (৯৮৭১)আবারো রুশ-চীনা অস্ত্র কিনবে ইরান, আশঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রের (৯৭৬৩)৪ ভারতীয়কে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করবে পাকিস্তান (৯৫৮৪)৩৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে নেপাল-ভারত তুমুল বিরোধ (৯৩৪৩)গৃহশিক্ষক বিয়েতে বাধা দেয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা (৯০৫০)ইলিয়াস কাঞ্চনকে যে কারণে সহ্য করতে পারেন না বাস-ট্রাক শ্রমিকরা (৯০১৪)