১৫ অক্টোবর ২০১৯

ফেসবুকের বিকল্প হার্টসবুক

-

বিশ্বে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফেসবুকের পাশাপাশি যুক্ত হলো ‘হার্টসবুক’। ফেসবুকের মতোই হার্টসবুক বা এইচবিতে আছে লাইক, কমেন্ট ও শেয়ারিং সিস্টেম। হার্টসবুকে টিভি দেখার পাশাপাশি আরো থাকছে মেসেঞ্জার, ফটো, অডিও-ভিডিও পোস্ট করার অপশন। প্রচুর স্টিকার ও কয়েন সেন্ড করা যাবে হার্টসবুকে।
গতকাল রোববার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে হার্টসবুকের শুভ মহরত অনুষ্ঠিত হয়। কেক কেটে অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন হার্টসবুকের চেয়ারম্যান অ্যান্ড সিইও মেজবাহ উদ্দিন সরকার রুবেল। এ সময় হার্টসবুকের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যান্ড ডিরেক্টর মাহাবুবা মোহাম্মদ বাবন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যান্ড ডিরেক্টর শামিমা সরকারসহ অনুষ্ঠানে আমেরিকা, চায়না, তুরস্ক, রাশিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়া, হংকং, ইউক্রেন, তাইওয়ান, উজবেকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, সোমালিয়া, নাইজেরিয়া ও ফিলিপাইনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
উদ্বোধনকালে মেজবাহ উদ্দিন সরকার রুবেল বলেন, বিশ্বে সামাজিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে হার্টসবুক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। শিগগিরই বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, চায়না, জাপান, মালয়েশিয়া ছাড়াও এশিয়ার বিভিন্ন দেশ এবং ইউরোপ আমেরিকাসহ বিশ্বে হার্টসবুক বা এইচবি এর ইউজার সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। তিনি বলেন, একজন ফেসবুক ইউজারের বন্দু সংখ্যা পাঁচ হাজার পর্যন্ত সীমাবদ্ধ। অথচ হার্টসবুকে এক সাথে ১০ হাজার বন্দু বানানো যাবে। এ ছাড়াও লাইভ ভিডিও এবং ওয়েব সিস্টেম রয়েছে হার্টসবুকে। যেকোনো স্মার্ট ফোনের গুগল প্লে স্টোর থেকে যবধৎঃং নড়ড়শ. পড়স লিখে সার্চ দিয়ে অ্যাপটি ডাউনলোডের পর সাইনআপ করে সহজেই হার্টসবুক ব্যবহার করা যাবে।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum