২১ আগস্ট ২০১৯

ইংরেজিতে লেখা গ্রামার বইয়ে আগ্রহ নেই অনেক শিক্ষার্থীর শিক্ষার হালহকিকত

-

ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠ্যকৃত ইংরেজি গ্রামার বই সম্পূর্ণরূপে ইংরেজিতে লেখা। পুরোপুরি ইংরেজিতে লিখিত হওয়ায় অনেক শিক্ষার্থী বিশেষ করে দুর্বল ছাত্রছাত্রীদের তেমন আগ্রহ নেই এ বইয়ের প্রতি। মূল বইয়ের পরিবর্তে অনেক শিক্ষার্থী গাইড বই থেকে গ্রামার শেখার চেষ্টা করে।
রাজধানীর নামকরা একটি স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণীর একজন শিক্ষার্থীর কাছে জানতে চাওয়া হয় ইংরেজি গ্রামার বই ইংরেজিতে লেখা হওয়ায় তার বা ক্লাসের অন্য শিক্ষার্থীদের কোনো সমস্যা হচ্ছে কি না। ওই শিক্ষার্থী এ প্রতিবেদককে জানায় কেউ তো বই-ই পড়ে না। সমস্যা হবে কি। বই পড়লে না বোঝা যেত সমস্যা হয় কি না।
কেন বই পড়ে না আর বই না পড়লে পরীক্ষায় কিভাবে উত্তর লেখেÑ জানতে চাইলে ওই শিক্ষার্থী জানায়, বই পড়ার দরকার হয় না। সিলেবাস অনুযায়ী বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর গাইড থেকে পড়লেই চলে। সে জন্য মূল বই কেউ পড়ে না।
ষষ্ঠ শ্রেণীর এ শিক্ষার্থী আরো জানায়, বর্তমানে শিক্ষার্থীদের কাছে সব বইয়ের গাইড রয়েছে। সব বইয়ের গাইড সেট আকারে একসাথে কিনতে হয়। অনেকের একাধিক সেট গাইড রয়েছে। তাই কোনো বইয়ের মূল বই পড়ার তেমন দরকার হয় না। মূল বইয়ের পরিবর্তে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর গাইড থেকে মুখস্থ করতে হয়।
ষষ্ঠ শ্রেণীর কয়েকজন অভিভাবকের সাথে এ বিষয়ে কথা বললে তারা জানান, গ্রামার বিশেষ করে ইংরেজি গ্রামার এমনিতেই অনেকের কাছে কঠিন একটি বিষয়। খুব কম শিক্ষার্থীকেই গ্রামারের মতো বিষয়ের প্রতি আগ্রহ রয়েছে। পরীক্ষার কারণে বাধ্য হয়ে তারা এটি পড়ে। তা ছাড়া অনেকের রয়েছে গ্রামার ভীতি। ইংরেজি ভীতিও রয়েছে অনেকের। অনেক শিক্ষার্থী ইংরেজিতে বেশ দুর্বল। গ্রামারের জন্য প্রায় সব শিক্ষার্থীই অন্যের ওপর নির্ভরশীল হয়ে থাকে। অন্যের কাছ থেকে বোঝার চেষ্টা করে। অনেক বোঝানোর পরও অনেকে অনেক কিছু ঠিকমতো বোঝে না। সে জন্য অনেক মা-বাবা যারা শিক্ষিত তারা তাদের সন্তানদের গ্রামার বিষয়ে বুঝিয়ে দেয় তাদের সন্তানদের। যাদের সে সুযোগ নেই তারা কোচিং প্রাইভেটের মাধ্যমে সন্তানদের গ্রামার বিষয়ে দক্ষতা অর্জনের চেষ্টা করে। আবার অনেক শিক্ষার্থী যাদের কোনো গতি নেই তারা নিজেরা বই পড়ে শেখার চেষ্টা করে। যেখানে অনেক দুর্বল ছাত্র ভালো করে ইংরেজিই জানে না সেখানে তারা সম্পূর্ণরূপে ইংরেজিতে লেখা গ্রামার বই পড়ে কেমন করে গ্রামার বুঝবে।
গ্রামার বই সম্পূর্ণ ইংরেজিতে হওয়ায় কোচিং প্রাইভেট নির্ভরতা আরো বেড়েছে বলে জানান তারা।
অনেক অভিভাবক অভিযোগ করেছে, ষষ্ঠ শ্রেণীর সব শিক্ষার্থী ইংরেজিতে এত ভালো হয়ে যায়নি যে, তাদের জন্য সম্পূর্ণরূপে ইংরেজিতে গ্রামার বই লেখা যেতে পারে। আরেকটু উপরের ক্লাস থেকে এটি করা যেতে পারত।
ষষ্ঠ শ্রেণীর একজন অভিভাবক বলেন, আমাদের ছেলেমেয়েরা তো বাংলা মিডিয়ামে পড়ছে। কিন্তু বইটি দেখে মনে হয় এটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য লেখা।
তবে অনেক অভিভাবক ষষ্ঠ শ্রেণী থেকেই সম্পূর্ণরূপে ইংরেজিতে গ্রামার বই লেখায় সন্তোষ প্রকাশ করেছে। তাদের মতে কিছু ভুল ভ্রান্তি থাকলেও এ ধরনের উদ্যোগ ভালো। এ ধরনের বইয়ের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা কিছুটা ইংরেজি চর্চার সুযোগ পাবে। বিশেষ করে যারা ইংরেজিতে দক্ষতা অর্জন করতে আগ্রহী তাদের জন্য ভালো এ উদ্যোগ।
ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে নবম-দশম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠ্যকৃত ইংরেজি গ্রামার বই জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড এনসিটিবি কর্তৃক প্রণীত।

 


আরো সংবাদ




bedava internet