২২ জুলাই ২০১৯

অস্ত্র মামলায় কম সাজা দেয়ায় বিচারকের ব্যাখ্যা চান হাইকোর্ট

-

অস্ত্র মামলার এক আসামিকে প্রচলিত অস্ত্র আইনে নির্ধারিত সর্বনিম্ন সাজার (১০ বছর) চেয়ে কম সাজা (৭ বছর) দেয়ায় নাটোরের তিন নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক বেগম রুবাইয়া ইয়াসমিনের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৫ জুলাইয়ের মধ্যে তাকে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আদালত আগামী ২৫ জুলাই পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন।
বিচারপতি এ এন এম বশির উল্লাহ ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন। অস্ত্র মামলার আসামি নাটোর সদরের কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের মো: লোকমান ভূঁইয়ার ছেলে মো: রাজ্জাককে দেয়া ৭ বছরের কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে আসামির করার আপিলের ওপর শুনানিকালে বিষয়টি আদালতের নজরে আসায় গতকাল এ আদেশ দেয়া হয়। আদালতে আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মো: তাহেরুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো: আমিনুল ইসলাম ও আনোয়ারা শাহজাহান এবং সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ফাতেমা রশিদ।
জানা যায়, ২০১৭ সালের ২৭ জুলাই পিস্তলসহ মো: রাজ্জাককে গ্রেফতার করে পুলিশ। একই দিন তার বিরুদ্ধে নাটোর সদর থানায় মামলা হয়। এই মামলায় বিচার শেষে গত ২৮ মার্চ রাজ্জাককে সাত বছরের কারাদণ্ড দেন নাটোরের তিন নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক বেগম রুবাইয়া ইয়াসমিন। ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯ক ধারায় এই সাজা দেয়া হয়। অথচ আইনের এই ধারায় সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং সর্বনিম্ন সাজা ১০ বছর কারাদণ্ড।

 


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi