২৫ মে ২০১৯

অনলাইন ও এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন চার দিনে একাদশে ভর্তির জন্য ৭ লাখ ২২ হাজার আবেদন

-

একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির জন্য প্রথম চার দিনে অনলাইন ও এসএমএসের মাধ্যমে সারা দেশে ৭ লাখ ২২ হাজার ৯৪১টি আবেদন জমা পড়েছে। তার মধ্যে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ২ লাখ ৩৪ হাজার ৫৬টি আবেদন জমা পড়ে। গত ১২ মে রোববার দুপুর ২টা থেকে অনলাইনে প্রথম ধাপের আবেদন গ্রহণ শুরু হয়। আবেদন করা যাবে আগামী ২৩ মে পর্যন্ত।
ঢাকা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক হারুন অর রশীদ গতকাল বেলা ৩টা পর্যন্ত আবেদন জমার পরিসংখ্যান জানিয়ে নয়া দিগন্তকে বলেন, প্রতি মুহূর্তেই আবেদনের পরিসংখ্যান বাড়ছে। তিনি জানান, অনলাইন ছাড়াও মোবাইল ফোনের এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন করছে ভর্তি হতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা।
জানা গেছে, মোট আবেদনকারীদের মধ্যে অনলাইনে আবেদনের সংখ্যা বেশি। অনলাইনে নয় বোর্ড মিলে আবেদন জমা পড়েছে ৫ লাখ ৮০ হাজার ৩১৭টি। আর মোবাইল ফোনের এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন জমা পড়েছে ১ লাখ ৪৩ হাজার ৫৯৮টি।
অধ্যাপক হারুন বলেন, সাধারণ আটটি শিক্ষা বোর্ডের মোট আবেদনকারীদের মধ্যে ঢাকা বোর্ডে আবেদন জমা পড়েছে বেশি।
উল্লেখ্য, অনলাইনে আবেদন করতে হবে িি.িীরপষধংংধফসরংংরড়হ.মড়া.নফ এই ঠিকানায়। এবার আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের এসএসসিতে ১৪ লাখ ৩ হাজার ১৫৭ শিক্ষার্থী পাস করেছে। তাদের মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৯৪ হাজার ৫৫৬ জন। ভর্তির জন্য একজন শিক্ষার্থীকে অনলাইনে কমপক্ষে পাঁচটি ও সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ বা সমমানের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য পছন্দক্রম দিয়ে আবেদন করতে হবে। এর মধ্যে শিক্ষার্থীর ফল ও পছন্দক্রমের ভিত্তিতে একটি প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য নির্বাচন করে দেয়া হবে। ইন্টারনেটের মাধ্যমে আবেদনের জন্য টেলিটক, বিকাশ, শিওরক্যাশ ও গ্রামীণফোনের মাধ্যমে ১৫০ টাকা প্রদান করতে হবে। যারা পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করেছে, তাদেরও এ সময়ের মধ্যে আবেদন করতে হবে। আগামী ২৪ মে থেকে ২৬ মে পর্যন্ত আবেদন যাচাই-বাছাই এবং আপত্তি নিষ্পত্তি করা হবে। পুনঃনিরীক্ষণের ফল পরিবর্তন হলেই কেবল আবেদন করতে হবে ৩ জুন থেকে ৪ জুনের মধ্যে। কলেজ পছন্দক্রম পরিবর্তন করা যাবে ৫ জুন পর্যন্ত। প্রথম পর্যায়ে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ হবে ১০ জুন। ১১ জুন থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের নিশ্চায়ন করতে হবে। নিশ্চায়ন না করলে প্রথম পর্যায়ের নির্বাচন ও আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।
দ্বিতীয় পর্যায়ে ভর্তির আবেদন গ্রহণ করা হবে ১৯ ও ২০ জুন। ২১ জুন দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে। ২২ ও ২৩ জুন দ্বিতীয় পর্যায়ের নিশ্চায়ন। নিশ্চায়ন না করলে দ্বিতীয় পর্যায়ের নির্বাচন ও আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে। ২৪ জুন তৃতীয় ও শেষ পর্যায়ের আবেদন গ্রহণ এবং ২৫ জুন শেষ পর্যায়ের ভর্তি আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে। ২৬ জুন ভর্তির নিশ্চায়ন করতে হবে। আগামী ২৭ জুন থেকে ৩০ জুনের মধ্যে একাদশে ভর্তি কার্যক্রম শেষ হবে। ১ জুলাই থেকে একাদশের নতুন বর্ষের ক্লাস শুরু হবে।
অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে ১৫০ টাকা আবেদন ফি জমা সাপেক্ষে সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে ভর্তির জন্য পছন্দ নির্ধারণ করে আবেদন করতে পারবে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। এ জন্য ১৫০ টাকা ফি নেয়া হবে। পছন্দক্রম অনুযায়ী একটি কলেজে ভর্তির অনুমোদন দেবে শিক্ষা বোর্ড। কলেজ নির্ধারণের পর ভর্তি নিশ্চায়ন করতে হবে। অন্যথায় শিক্ষার্থীকে আবারো নতুন করে আবেদন করতে হবে। ভর্তির জন্য কলেজ পাওয়ার পর শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিশ্চায়ন (রেজিস্ট্রেশন) করতে হবে। এ জন্য বিকাশ, শিওরক্যাশের মাধ্যমে ১৯৫ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

 


আরো সংবাদ




Instagram Web Viewer
agario agario - agario
hd film izle pvc zemin kaplama hd film izle Instagram Web Viewer instagram takipçi satın al Bursa evden eve taşımacılık gebze evden eve nakliyat Canlı Radyo Dinle Yatırımlık arsa Tesettürspor Ankara evden eve nakliyat İstanbul ilaçlama İstanbul böcek ilaçlama paykasa