২০ মে ২০১৯

সুপরিকল্পিত চক্রান্তে গণতন্ত্রবিহীন করা হয়েছে বাংলাদেশকে : ফখরুল

-

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সুপরিকল্পিত চক্রান্তের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে গণতন্ত্রবিহীন করা হয়েছে। রাষ্ট্রের সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ভেঙে দিয়ে একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রবর্তন করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এ অবস্থায় গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণ-আন্দোলন সৃষ্টি করতে হবে।
গতকাল বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাবেক ও বর্তমান ছাত্র ফোরামের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পরে দলে আমরা একটা যৌথ নেতৃত্ব গড়ে তুলেছি। সেই যৌথ নেতৃত্বের মধ্য দিয়ে সব সিদ্ধান্ত নিয়ে জনগণের কাছে যাচ্ছি। জনগণকে সাথে নিয়ে, জনগণকে আন্দোলনে সম্পৃক্ত করে আমাদেরকে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে।
নেতাকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আসুন, আমরা একসাথে একটি গণ-আন্দোলন সৃষ্টি করি, যে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে আমরা দেশনেত্রীকে মুক্ত করব, গণতন্ত্রকে মুক্ত করব, তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে পারব।
ছাত্রসমাজকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার তাগিদ দিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ছাত্ররা সারা জীবন সব সময়ই সবচেয়ে বেশি ত্যাগ শিকার করেছে, এই ছাত্ররা ভাষা আন্দোলনে বেশি রক্ত দিয়েছে, ’৬৯-এর আন্দোলনে রক্ত দিয়েছে, ’৯০-এর আন্দোলনে রক্ত দিয়েছে, একাত্তরের স্বাধীনতাযুদ্ধে তারা বুকের রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করেছে। আজকে তাদের সবার ওপর আবারো মহান দায়িত্ব এসেছে। সেই দায়িত্ব হচ্ছে এ দেশকে রক্ষা করার জন্য, গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রীকে মুক্ত করার জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।
দেশে সঙ্কট চলছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, গণতন্ত্রের জন্য যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন, অতীতে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছেন তাদেরকে আজকে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে দেয়ার চক্রান্ত করা হচ্ছে। অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে, সচেতনভাবে মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিয়ে, রাষ্ট্রের সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ভেঙে দিয়ে দেশে একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রবর্তন করার চেষ্টা করা হচ্ছে। বিচার বিভাগ, প্রশাসন থেকে শুরু করে মিডিয়া পর্যন্ত এর হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না।
শ্রীলঙ্কার কলম্বোর বোমা বিস্ফোরণের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, যারা নিহত হয়েছেন তাদের জন্য শোক প্রকাশ করছি এবং যারা আহত হয়েছেন তাদের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করছি, যাতে তারা দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন। আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই, এ ধরনের হত্যাকাণ্ড, এই ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে আমরা নিন্দা জানাই, প্রতিবাদ করি। এর বিরুদ্ধে সারা বিশ্বে একটি আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।
সংগঠনের সাবেক আহ্বায়ক আবদুল খালেক হাওলাদারের সভাপতিত্বে সমাবেশে ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, কেন্দ্রীয় নেতা ড. আসাদুজ্জামান রিপন, খায়রুল কবির খোকন, শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, এ বি এম মোশাররফ হোসেন, আমিরুল ইসলাম খান আলিম, আনিসুর রহমান খান খোকন, আবদুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, আ ক ম মোজাম্মেল হক, শামসুজ্জামান সুরুজ, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আসিফ রহমান বিপ্লবসহ সাবেক ও বর্তমান নেতারা বক্তব্য রাখেন।


আরো সংবাদ

গোপালগঞ্জে মসজিদ ফান্ডের হিসাব চাওয়ায় কুপিয়ে জখম আড়াইহাজারে দেয়াল চাপায় নির্মাণশ্রমিকের মৃত্যু জাবিতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আদলে হয়রানিমূলক শৃঙ্খলাবিধি পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে ফিরলেন আমির-ওয়াহাব-আসিফ দলিত সম্প্রদায়ের প্রথম গ্র্যাজুয়েট সনু রানী সৈয়দপুরে ডায়রিয়া ও জ্বরে আক্রান্ত ১৫২ জন হাসপাতালে ভর্তি ‘পঞ্চগড়’ এক্সপ্রেস ট্রেনের জয়পুরহাট স্টেশনে যাত্রা বিরতির দাবি রংপুর মহানগরীতে বিআরটিসির দ্বিতল সিটি সার্ভিস বাস চালু বিচারাধীন বিষয়ে সংবাদ পরিবেশনা করার বিষয়ে অতিদ্রুত ব্যাখ্যা পাবেন : আইনমন্ত্রী আফগানদের পাত্তা দিল না আয়ারল্যান্ড ভাড়া করা নেতৃত্বে চলছে বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

সকল




agario agario - agario