১৯ জুলাই ২০১৯

স্বাধীনতা ফোরামের অবস্থান কর্মসূচি আন্দোলনেই খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে : ড. মোশাররফ

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে স্বাধীনতা ফোরামের অবস্থান : নয়া দিগন্ত -

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আগেই খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন শুরু করতে হবে। গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে গণতন্ত্রকে মুক্ত করা যাবে না। আগে দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে হবে। তাই আমাদের প্রধান দায়িত্ব দেশনেত্রীকে মুক্ত করা এবং তার নেতৃত্বে এই দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা, জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা। আসুন দেশনেত্রীকে মুক্ত করে তার নেতৃত্বে আন্দোলন গড়ে তুলি। আপনারা যে যেখানে আছেন ঐক্যবদ্ধভাবে সেই আন্দোলনে শরিক হওয়ার জন্য এবং সেই আন্দোলনের প্রস্তুতি গ্রহণ করার জন্য আমি আহ্বান রাখছি।
গতকাল সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত এক প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। রাজধানীতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে স্বাধীনতা ফোরামের উদ্যোগে এই কর্মসূচি পালিত হয়। সংগঠনের সভাপতি আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহর সভাপতিত্বে এই অবস্থান কর্মসূচিতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, জাতীয় দলের সভাপতি সৈয়দ এহসানুল হুদাসহ অন্য নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
দেশের বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থা প্রসঙ্গে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, দেশে এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। দেশের গণতন্ত্র আওয়ামী লীগের বাক্সে বন্দী, দেশের অর্থনীতি লুটেরাদের হাতে, খেলাপিদের হাতে দেশের অর্থনীতি। শেয়ারবাজারের আজকে করুণ অবস্থা। শুধু তাই নয়, কোনোক্রমে এ দেশের জনগণ নিরাপদ বোধ করে না। আপনারা দেখেছেন কিছুদিন আগে সোনাগাজীতে নৃশংসভাবে আমাদের একজন ছোট বোন মারা গিয়েছে। কোনো মানুষ আজকে নিরাপদ নয়। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার কোনো বিকল্প নেই।
সভাপতির বক্তব্যে আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ বলেন, বর্তমান সরকার জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নয়। এ জন্যই জনগণের প্রতি তাদের কোনো দায়বদ্ধতা নেই। আজকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন মিথ্যা মামলায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দী করা হয়েছে। আমরা তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি, কোনো শর্তে বা প্যারোলে নয়। অবিলম্বে মুক্তি না দিলে জনগণ প্রতিরোধ গড়ে তুলবে এবং সরকারকে সমুচিত জবাব দিবে।
সাঈদ আহমেদ আসলাম, ফরিদ উদ্দিন, কাজী মনিরুজ্জামান মনির, ঈসমাইল তালুকদার খোকন, ইশতিয়াক আহমেদ বাবুল, ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi