২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

চকরিয়ায় কাভার্ডভ্যান-ইজিবাইক সংঘর্ষে নারীসহ চারজন নিহত

-

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ায় এক দিনের ব্যবধানে আবারো ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এবার কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ইজিবাইক টমটম দুমড়ে-মুচড়ে গিয়ে ঝরে গেল এক নারীসহ চারজনের প্রাণ। আহত হয়েছে শিশুসহ আরো পাঁচজন যাত্রী। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের পাঠানো হয় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (চমেক)। গতকাল বুধবার বেলা পৌণে ১১টার দিকে মহাসড়কের চকরিয়ার হারবাং ইনানী রিসোর্টের সামনে ঝুঁকিপূর্ণ বাঁকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।
প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার দুপুর পৌণে ১২টার দিকে মহাসড়কের বরইতলী নতুন রাস্তার মাথায় যাত্রীবাহী স্টার লাইন পরিবহনের বাসের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় যাত্রীবোঝাই ছারপোকার। এতে ঝরে যায় তিন নারীসহ সাতজন ছারপোকার যাত্রীর। প্রাণ আহত হয় দুই বাসের অন্তত ১০ জন যাত্রী। এ নিয়ে দুই দিনের সড়ক দুর্ঘটনায় চকরিয়ায় নিহতের সংখ্যা দাঁড়াল ১১ জনে ও আহত হয় ১৫ জন।
নিহত চারজনের মধ্যে তিনজনের নাম পাওয়া গেছে। তারা হলেনÑ কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের দশের ঘোনার আবদুল খালেকের ছেলে মো: ইউনুস মিয়া (৩৫), চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের মুসলিম পাড়ার আবদুস সাত্তারের ছেলেত্র তাজউদ্দিন (২৫), একই ইউনিয়নের জমিদার পাড়ার ছৈয়দ আহমদের ছেলে ইজিবাইক টমটম চালক আবু তাহের (৩৮)। এ ছাড়াও ৩৫ বছর বয়সের অজ্ঞাত এক নারী নিহত হলেও এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তার পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ।
মহাসড়কের চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ ও সার্জেন্ট নূরে আলম জানান, ‘দুর্ঘটনায় পতিত গাড়ি দু’টি হাইওয়ে পুলিশ জব্দ করেছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।’
চকরিয়া থানার ওসি মো: বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী দুর্ঘটনায় এক নারীসহ চারজন মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
অলৌকিকভাবে বাঁচলেন তিনজন
এ দিকে চট্টগ্রাম শহর থেকে প্রাইভেট কারে কক্সবাজারের চকরিয়ায় আসার পথে একই সময়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন কালের কণ্ঠ চট্টগ্রাম ব্যুরোর স্টাফ রিপোর্টার আসিফ সিদ্দিকী (৪০), তার মা জওশন আরা বেগম (৬০) ও কার চালক মো: ইকবাল (৩২)। তবে তারা অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলেও আহত হয়েছেন। তাদের চকরিয়া পৌরশহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আসিফ সিদ্দিকী জানান, সকালে তাদের বহনকারী প্রাইভেট কারটি মহাসড়কের লোহাগাড়ার চুনতি মিডওয়ে-ইন রেস্টুরেন্টের কাছে পৌঁছলে অগ্রভাগে থাকা স্টার লাইন পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস ওই রেস্টুরেন্টে যাত্রাবিরতির জন্য সিগন্যাল না দিয়ে সড়কের ডান পাশ দিয়ে ঢুকে পড়ে। এই অবস্থায় তাদের বহনকারী কারটির চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়ক থেকে ছিটকে পড়ে কারটি গড়াগড়ি দিয়ে ধানক্ষেতে গিয়ে পড়ে। এতে তারা আহত হন।
মিরসরাইয়ে চালক-হেলপার নিহত
মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মিরসরাইয়ে দাঁড়ানো কাভার্ডভ্যানকে পেছন থেকে ধাক্কায় চালক ও হেলপার নিহত হয়েছেন। গত মঙ্গলবার রাত ৩টায় উপজেলার জোরারগঞ্জ থানার মস্তাননগর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেনÑ কাভার্ডভ্যান চালক কবির হোসেন (৪০)। তবে হেলপারের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় গৌতম (১৮) নামে আরো একজন আহত হয়েছেন।
মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ইন্সপেক্টর রবিউল আজম রবিন বলেন, ঢাকামুখী দু’টি পণ্যবাহী কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় চালকসহ দু’জন নিহত এবং একজন আহত হয়েছেন। দাঁড়ানো একটি কাভার্ডভ্যানের (ঢাকা মেট্রো-ট-১১-৬৫০৬) পেছনে অন্য আরেকটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্রো-ট-১৫-৩৭২৭) ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দেড় ঘণ্টা উদ্ধার তৎপরতার পর হতাহতদের উদ্ধার করা হয়। আহত গৌতমকে মস্তাননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
জোরারগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ সোহেল সরকার জানান, দুর্ঘটনা কবলিত কাভার্ডভ্যান দু’টি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।
ব্যাংক কর্মচারী নিহত
গজারিয়া (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের গজারিয়া অংশের আনারপুরা এলাকায় বেপরোয়া ট্রাকের চাপায় ব্যাংক কর্মচারী গোলাম মোস্তফা (৫২) নিহত হয়েছেন। উপজেলার আনারপুরা গ্রামের মরহুম মোতালেব প্রধানের ছেলে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকাল ৮টায় কর্মস্থল সোনালী ব্যাংকে যাওয়ার জন্য মহাসড়ক পারাপারের সময় দ্রুতগামী ট্রাকের চাপায় ঘটনাস্থলে নিহত হন তিনি।
গজারিয়া থানার ভবেরচর হাইওয়ে পুলিশের এসআই রাকিব হোসেন জানান, ঘাতক ট্রাকটি আটক করা হয়েছে। তবে চালক পালিয়ে গেছেন।

 


আরো সংবাদ