১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

উচ্চশিক্ষার মান বাড়াতে আরো উদ্যোগী হতে হবে : রাষ্ট্রপতি

রাজধানীতে ইউজিসি স্বর্ণপদক প্রদান অনুষ্ঠানে পদকপ্রাপ্তদের মধ্যে রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ :পিআইডি -

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ উচ্চশিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত করতে ইউজিসিকে শিক্ষার মান নির্ধারণ, তদারকিসহ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে জবাবদিহিতা বাড়াতে আরো উদ্যোগী হতে বলেছেন। রাষ্ট্রপতি গতকাল বিকেলে নগরীর একটি হোটেলে নবম ইউজিসি পদক প্রদান অনুষ্ঠানে ভাষণদানকালে বলেন, উচ্চশিক্ষার মান নিশ্চিত করতে আরো উদ্যোগী হতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর চ্যান্সেলর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ উচ্চশিক্ষার প্রত্যেক স্তরে মূল্যায়ন ও তদারকি এবং এ ক্ষেত্রে ইউজিসি কর্তৃপক্ষের জোরালো ভূমিকার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
এর আগে কয়েকটি পৃথক বৈঠকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, ইউজিসি ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কর্তৃপক্ষকে তার দেয়া নির্দেশনার কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন যে ইউজিসি এসব নির্দেশনা ও সামগ্রিক উন্নয়নের বিষয় প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কঠোরভাবে মনিটর করবে।
তিনি ইউজিসি ও সংশ্লিষ্ট অন্যদের বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি অর্জনের পর কেউ যেন শিক্ষিত ও অভিজাত বেকারে পরিণত না হয় সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।
রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশের সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে ৩৯ লাখ শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে। শিক্ষার্থীর সংখ্যায় বাংলাদেশের স্থান বিশ্বে চতুর্থ। সময়োপযোগী শিক্ষানীতি ও এর সফল বাস্তবায়নের সুবাদে এই অর্জন সম্ভব হয়েছে। তিনি দেশে উচ্চশিক্ষার বিস্তারে বেসরকারি খাতের অবদানের প্রশংসা করার পাশাপাশি এ কথাও বলেন যে, শিক্ষার নামে বাণিজ্য কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হবে না। পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়মের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, সুষ্ঠু পরিবেশ, অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা ও যোগ্যতাসম্পন্ন শিক্ষকের অভাবে অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুণগত শিক্ষা প্রদান ব্যাহত হচ্ছে।
তিনি মানসম্পন্ন শিক্ষা ও উন্নত গবেষণার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, এটি হচ্ছে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের প্রধান চালিকাশক্তি। শিক্ষক ও গবেষকগণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় মানসম্পন্ন শিক্ষাদান ও উন্নয়নে খুবই তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে এ কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, জাতি আশা করে আপনারা (শিক্ষক ও গবেষক) মেধার জগতে নতুন দিগন্তের উন্মোচন করবেন।
শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের সচিব মো: সোহরাব হোসেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের প্রভাষক অর্পিতা শামস মিজান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক হারুন-অর-রশিদ, ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক ড. দিল আফরোজ বেগম অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন।


আরো সংবাদ