১৫ নভেম্বর ২০১৮
অধিবেশন মুলতবি

বিদ্যুৎ বিভ্রাটে অচল সংসদ

-

বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে গতকাল মঙ্গলবার কার্যত অচল হয়ে পড়েছিল জাতীয় সংসদ ভবন। দিনের সব কার্যক্রম স্থগিত করে সংসদ অধিবেশন মুলতবি করতে বাধ্য হন স্পিকার। ইন্টারনেট সচল না থাকায় সংবাদ পাঠাতেও বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে সাংবাদিকদের। গতকাল বিকেল ৫টার পর শুরু হওয়া এই অধিবেশন ঘণ্টাখানেক চলার পর সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে মুলতবি করে দেন স্পিকারের আসনে বসা ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া। মুলতবির ঘোষণায় ডেপুটি স্পিকার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কথা না বললেও অনিবার্য কারণে অধিবেশন চালানো যাচ্ছে না বলে জানান।
পরে সংসদ ভবনে ডেপুটি স্পিকারের কার্যালয়ে বসে সাংবাদিকদের তিনি বিদ্যুৎ বিভ্রাটের বিষয়টি অবহিত করেন। ডেপুটি স্পিকার বলেন, জাতীয় গ্রিডে সমস্যা দেখা দেয়ায় জাতীয় সংসদ ভবনে বিদ্যুতের সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। যে কারণে অধিবেশন চালানো যায়নি। কখন বিদ্যুৎ সরবরাহ সচল হবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোনো তথ্য জানাতে পারেননি।
সংসদ সচিবালয় জানিয়েছে, এ ধরনের ঘটনা বিরল। অতীতে এ রকম হয়েছে কি না জানা নেই। বিকেল পৌনে ৪টার পরে সংসদ ভবন এলাকার বিদ্যুৎ বিপর্যয় হয়। এ সময় সংসদ ভবনের বেশির ভাগ ফোরে বিদ্যুৎসংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ৫টায় বসার কথা থাকলেও স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন ১০ মিনিট পর শুরু হয়। মাগরিবের নামাজের আগে প্রশ্নোত্তর পর্ব শেষ হলে তখন সভাপতিত্বকারী ডেপুটি স্পিকার দিনের অন্যান্য কার্যসূচি স্থগিত করেন।
সংসদ সচিবালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, বিদ্যুৎ বিভ্রাট শুরু হলে অধিবেশন ক এবং প্রয়োজনীয় কয়েকটি স্থানে জেনারেটরের মাধ্যমে কাজ চালানো হয়। সংসদের বৈঠকে দিনের কার্যসূচিতে প্রশ্নোত্তর ছাড়াও ছিল ৭১ বিধিতে জরুরি জন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, তথ্য কমিশনের বার্ষিক প্রতিবেদন উত্থাপন। স্থায়ী কমিটির বিল সম্পর্কিত রিপোর্ট উত্থাপনের মধ্যে ছিল জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমি বিল, সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল।
এ ছাড়া হাউজিং অ্যান্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউট বিল, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন বিল। এ ছাড়া সংসদে প্রধানমন্ত্রীর সাথে বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের সাাৎ করার কথা ছিল, সেই কার্যক্রমও প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন, গণভবনে নিয়ে যাওয়া হয়।
এ দিকে গতকাল সংসদ অধিবেশন শুরুর সময় থেকেই পিএম ব্লক ছাড়া সাংবাদিক লাউঞ্জসহ সংসদ ভবনের সব জায়গায় ইন্টারনেট কানেকশন বন্ধ থাকে। যে কারণে সংসদ অধিবেশনের সংবাদ পাঠাতে ঝামেলায় পড়েন সংসদ বিটে কর্মরত সাংবাদিকেরা।
সংসদ সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, বিদ্যুৎ সমস্যার কারণেই ইন্টারনেট কানেকশন সচল রাখা সম্ভব হচ্ছে না। তবে বিকল্প উপায়ে কানেকশন সচল করার চেষ্টা চলছে। এর কিছুক্ষণ পর সংসদ অধিবেশন মুলতবির ঘোষণা এলে সাংবাদিকেরা যে যার মতো সুবিধাজনক স্থানে গিয়ে সংবাদ পাঠান।


আরো সংবাদ