২৪ অক্টোবর ২০১৮

রেমিট্যান্সে কোনো ভ্যাট নেই

-

বিদেশ থেকে প্রেরিত রেমিট্যান্সের ওপর মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে আরোপিত হয়নি। ভ্যাট আরোপ হয়েছে এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও গুজব তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। দেশের বৈধ রেমিট্যান্স প্রবাহ বন্ধ করে হুন্ডির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা প্রেরণের অপপ্রয়াস হিসেবে এ প্রচারণা চালানো হচ্ছে বলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) মনে করছে বলে সংস্থার এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
রাজস্ব বোর্ড বলছে, মূল্য সংযোজন কর বা মূসক আরোপিত হয় পণ্য বা সেবা সরবরাহের ওপর। বাংলাদেশের প্রবাসীরা দেশের বাইরে নিজস্ব কঠোর শ্রমের বিনিময়ে যে সেবা দিয়ে থাকেন তার বিনিময়ে বৈদেশিক মুদ্রা আহরিত হয়। এ সম্পূর্ণ কার্যক্রম মূল্য সংযোজন কর আইন, ১৯৯১ এর ধারা ৩ এর উপ-ধারা ২(ক) মোতাবেক সেবা রফতানি হিসাবে বিবেচিত। সুতরাং এ রফতানি কার্যক্রম ভ্যাটের আওতাবহির্ভূত। অর্থাৎ রেমিট্যান্স সীমা নির্বিশেষে এ খাতের ওপর কোনো ভ্যাট প্রযোজ্য নয়। তাই প্রবাসীরা বৈধ ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে যেকোনো পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা বা রেমিট্যান্স প্রেরণ করতে পারেন।
অবৈধ চ্যানেল বা হুন্ডির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা বা রেমিট্যান্স প্রেরণ করা হলে তা জাতীয় অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখতে পারে না। তাই রাজস্ব বোর্ড হুন্ডির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা বা রেমিট্যান্স প্রেরণ থেকে বিরত থাকার জন্য সবাইকে অনুরোধ করেছে। হুন্ডি বা মানি লন্ডারিং প্রতিরোধের বিষয়ে সবসময় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।


আরো সংবাদ